শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২১ মে, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ মে, ২০২০ ২৩:১৮

ফেরি ভেড়াতে দেয়নি পুলিশ ঝুঁকি নিয়ে ট্রলারে পদ্মা পাড়ি

রাজবাড়ী ও মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

ফেরি ভেড়াতে দেয়নি পুলিশ ঝুঁকি নিয়ে ট্রলারে পদ্মা পাড়ি
দৌলতদিয়া ঘাট থেকে ফেরত পাঠানো ফেরি -বাংলাদেশ প্রতিদিন

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে ঈদুল ফিতর সামনে রেখে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা যাত্রী পারাপার বন্ধ করতে দিনে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে। গতকাল দুপুরে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া থেকে দুটি অ্যাম্বুলেন্সসহ প্রায় এক হাজার যাত্রী নিয়ে একটি ফেরি রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে এলে সেটিকে ভিরতে দেয়নি রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান। যাত্রী থাকার কারণে কোনো ঘাটে ফেরিটি না ভেরানোর সত্যতা স্বীকার করেন দৌলতদিয়া বিআইডব্লিউটিসির কর্তৃপক্ষ। পরে সেটি পাটুরিয়ায় ফেরত পাঠানো হয়। অন্যদিকে ফেরি বন্ধ থাকার কারণে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রলারে উত্তাল পদ্মা পাড়ি দিচ্ছেন সাধারণ মানুষ। সকাল সাড়ে ১০টায় রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ৫ নম্বর ফেরিঘাট থেকে একটি ট্রলারে ১৫ জন যাত্রী নিয়ে পাটুরিয়ার উদ্দেশে ছেড়ে যায়। ট্রলারে যাত্রী ওঠা থেকে ছেড়ে যাওয়ার সময় ট্রলারটি থামাতে কোনো উদ্যোগ দেখা যায়নি ঘাট এলাকায় কাজ করা কোনো কর্তৃপক্ষকে। স্থানীয়রা জানান, সুযোগ পেলেই ট্রলারে নদী পারি দিচ্ছেন বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা যাত্রীরা। নৌ-পুলিশের ফরিদপুর অঞ্চলের দায়িত্বরত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অমিত চৌধুরী বলেন, নৌ-পুলিশ ঢাকামুখী যাত্রী পারাপার রোধে ঘাট এলাকায় কাজ করে যাচ্ছে। তবে দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকা অনেক বড়। তাদের জনবল সংকট রয়েছে। পদ্মা নদী উত্তাল থাকায় তারা মাঝ নদীতে টহল দিতে না পারার কারণে বিভিন্নভাবে যাত্রীরা পারাপার হচ্ছে বলে জানান নৌপুলিশের এই কর্মকর্তা।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর