শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ নভেম্বর, ২০১৭ ১৬:৫৯

ছাত্র বলাৎকারের দায়ে মাদ্রাসা শিক্ষক জেলহাজতে

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:

ছাত্র বলাৎকারের দায়ে মাদ্রাসা শিক্ষক জেলহাজতে

শিশু ছাত্র বলাৎকারকারি সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার ইউসুফিয়া কওমী মাদ্রাসার মুহতামিম (অধ্যক্ষ )আশরাফ আলীকে (৪০) গ্রেফতারের পর জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। আজ বিকেলে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মল্লিকা বসাক তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। এর আগে মাদ্রাসার সাবেক শিক্ষক মুফতি আব্দুল ওয়াদুদ বাদী হয়ে কোর্টে মামলা দায়ের করলে বিচারক তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিলে বেলকুচি থানা পুলিশ তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় সোমবার রাতে মুহতামিম আশরাফকে গ্রেফতার করেন। 

মামলা সূত্রে জানা যায়, ইউসুফিয়া মাদ্রাসার মুহতামিম আশরাফ আলী চলতি বছরের ৫ মে মাদ্রাসার ছাত্র শিশু ছাত্র আল-আমিনকে তেল মালিশের কথা বলে ঘরে ডেকে নিয়ে বলাৎকার করে। এসময় শিশুটির চিৎকারে স্থানীয়রা মুহতামিমকে আটকে মারপিট করে পুলিশে সোপর্দ করার চেষ্টা করলে মুহতামিমের প্রভাবশালী স্বজনরা সুষ্ঠ বিচারের আশ্বাস দিয়ে ছাড়িয়ে নেয়। কিন্তু দীর্ঘদিন পার হলেও বিচার না দিয়ে উল্টো ওই ছাত্রকে মাদ্রাসা থেকে বিতাড়িত করে দিয়ে নানা ধরনের ভয়ভীতি দেখায়। এ অবস্থায় গত মাসের ২৫ তারিখে মাদ্রাসার সাবেক শিক্ষক আব্দুল ওয়াদুদ বাদী হয়ে কোর্টে মামলা দায়ের করে। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে বেলকুচি থাকে তদন্তের নির্দেশ দেন।

বেলকুচি থানার উপ-পরিদর্শক নাজমুল হোসেন জানান, প্রাথমিকভাবে তদন্তে ঘটনাটি সত্য প্রমাণিত হওয়া আশরাফ আলীকে গ্রেফতারে আদালতে প্রেরণ করা হলে আদালতে তাকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। একই সাথে আদালত বলাৎকারের শিকার শিশুটির জবানবন্দী গ্রহণ করেছেন। এর আগে সকালে শিশু ছাত্রের মেডিকেল পরীক্ষাও করানো হয়েছে। 

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার


আপনার মন্তব্য