শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ মে, ২০১৯ ২১:৫৪

গোপালগঞ্জে ডাক্তার-নার্সদের গ্রেফতারের দাবি

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি:

গোপালগঞ্জে ডাক্তার-নার্সদের গ্রেফতারের দাবি

গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মরিয়ম সুলতানা মুন্নিকে নার্সের ভুল ইনজেকশন পুশ করার প্রতিবাদে ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এ কর্মসূচি পালন করে।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ২টার দিকে স্থানীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বঙ্গবন্ধু সড়কের উপর দাঁড়িয়ে হাতে হাত ধরে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। এসময় ডাক্তারসহ দোষীদের শাস্তির দাবিতে বিভিন্ন ধরনের লেখা প্লাকার্ড প্রদর্শন করে।

মানববন্ধন চলাকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জাহাঙ্গীর আলম, শেখ তারেক, আঞ্জু মনোয়ারা, অর্নি খান বক্তব্য রাখেন।  

এসময় বক্তারা চার দফা দাবি তুলে ধরে দ্রুত দোষীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবী জানায়। তা’না হলে কঠোর আন্দোলন করা হবে বলে হুশিয়ারি দেন।

সঙ্গত, পিত্ত থলির পাথর জনিতকারনে মুন্নিকে ডাক্তার তপন কুমার মন্ডলের কাছে দেখানো হয়। গত মঙ্গলবার (২১ মে) সকাল ১০টায় ওই শিক্ষার্থীর অপারেশন করার দিন ধার্য ছিল। ভোর সাড়ে ৫টার দিকে হাসপাতালের নার্স ওই ছাত্রীকে গ্যাসের ইনজেকশনের পরিবর্তে ভুল করে অজ্ঞান করার ইনজেকশন দিলে ওই শিক্ষার্থী জ্ঞান হরিয়ে ফেলেন। পরে তাকে খুলনার আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় বুধবার সন্ধ্যায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এঘটনায় ওই ছাত্রীর চাচা জাকির হোসেন বিশ্বাস বাদী হয়ে ডা. তপন কুমার মন্ডল, নার্স শাহানাজ ও কুহেলিকাকে অভিযুক্ত করে সদর থানায় মামলা দায়ের করেন।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

 

 

 


আপনার মন্তব্য