শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৮:৪৪

আওয়ামী লীগে ফিরলেন তিনবারের পাবনা পৌর মেয়র কামরুল হাসান মিন্টু

পাবনা প্রতিনিধি:

আওয়ামী লীগে ফিরলেন তিনবারের পাবনা পৌর মেয়র কামরুল হাসান মিন্টু

বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী নিয়ে নিজ দল আওয়ামী লীগে ফিরলেন পাবনা পৌরসভার ৩ বারের নির্বাচিত মেয়র কামরুল হাসান মিন্টু। 

রবিবার সন্ধ্যায় ঢাকার আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ে পাবনা পৌরসভার বেশ কয়েকজন কাউন্সিলর ও সদর উপজেলার সাবেক কয়েকজন ইউপি চেয়ারম্যানসহ বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগে ফিরছেন তিনি। 

পাবনা পৌরসভার তিনবারের নির্বাচিত মেয়র, এডওয়ার্ড বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্রলীগ মনোনীত এজিএএস, জিএস, ভিপি ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা কামরুল হাসান মিন্টু। তার সঙ্গে আরও যোগদান করেন, পাবনা পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ ফরিদুল ইসলাম ডালু, প্যানেল মেয়র তমা ইসলাম পুস্প, পাবনা এডওয়ার্ড কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক জিএস খন্দকার হাসানুর রহমান রনি, মালি  ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলী রেজা কাকন, মালিগাছা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান উম্মত আলী প্রমুখ।  

দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ফুলের শুভেচ্ছা গ্রহণের মাধ্যমে তাকে বরণ করেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবীর নানক, বিএম মোজাম্মেল হক এমপি, অসীম কুমার উকিল এমপি, মৃণাল কান্তি এমপি, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ও দুদকের সাবেক সফল কমিশনার সাহাবুদ্দিন চপ্পু, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপি, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু এমপি, আহমেদ ফিরোজ কবীর এমপি, পাবনা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ মোশারোফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সোহেল হাসান শাহীন, বেড়া পৌরসভার মেয়র আলহাজ আব্দুল বাতেন, সুজানগর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহিনুজ্জামান শাহিন, আটঘরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান তানভীর ইসলাম, জেলা যুবলীগ আহবায়ক আলী মতুর্জা বিশ্বাস সনি, যুগ্ম আহ্বায়ক শিবলী সাদিকসহ বিপুল সংখ্যক স্থানীয় নেতাকর্মী ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

এ সময় ওবায়দুল কাদের বলেন, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সম্মতিতে ও দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশেই সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কামরুল হাসান মিন্টু মিন্টু ও তার অনুসারীদের দলে ফিরিয়ে নেয়া হলো। এ সময় কামরুল হাসান মিন্টু তাকে দলে ফিরিয়ে নেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। পরে রাতে ফুল দিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান কামরুল হাসান মিন্টু ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। 
মিন্টুর আওয়ামী লীগে ফিরে আসার মধ্যে দিয়ে দল আরো সুসংগঠিত হবে বলে মনে করছেন স্থানীয় নেতাকর্মিরা।

তবে কামরুল হাসান মিন্টুর আওয়ামী লীগে যোগদান অনেকেই ভালো চোখে দেখছেন না। তিনি দীর্ঘদিন জেলা বিএনপির সাংঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। পরে জেলা বিএনপি থেকে বহিষ্কারও হন। বিএনপিতে থাকা অবস্থায় পাবনা জেলা বিএনপিতে শিমুল বিশ্বাস ও মিন্টু গ্রুপের মধ্যে বিরোধ তুঙ্গে ছিল। বিষয়টি অনেকেই ভালো চোখে গ্রহণ করছেন না। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর