শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৯:১৩

চুল কেটে নারীকে নির্যাতন; নিরাপত্তা দিতে এসপিকে নির্দেশ আদালতের

ঝালকাঠি প্রতিনিধি:

চুল কেটে নারীকে নির্যাতন; নিরাপত্তা দিতে এসপিকে নির্দেশ আদালতের
প্রতীকী ছবি

ঝালকাঠিতে আওয়ামী লীগ নেত্রী ও বিএনপি নেতা মিলে নারীর চুল কেটে নির্যাতনের ঘটনায় নির্যাতিতাকে তার স্বামীর জিম্মায় পুলিশী নিরাপত্তা দিতে পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। গত বৃহস্পতিবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মো. শহিদুল্লাহ বাদি পক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৩১ ধারার বিধানমতে এ আদেশ দেন।

মামলার বিবরণে প্রকাশ গত ৩০ আগস্ট রাতে শহরের পূর্বচাদঁকাঠি এলাকার ব্যবসায়ী মো. বোরহান উদ্দিন খানের দ্বিতীয় স্ত্রী মোসা. পারভীনকে (৩০) জেলা পরিষদের সামনের একটি বাড়িতে মারধর এবং সেখান থেকে তুলে এনে পূর্বচাদঁকাঠি একটি বাড়িতে আটকে রেখে শারিরীক, মানসসিক নির্যাতন শেষে চুল কেটে দেয়া হয়। জেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক শারমীন মৌসুমি কেকার নেতৃত্বে এ কাজ করা হয়। । 

এ ব্যাপারে নির্যাতিত নারী বাদী হয়ে গত ১৭ সেপ্টেম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে শারমীন মৌসুমি কেকা, শহর বিএনপি সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান তাপুসহ ৬ জনের নামে একটি নালিশী মামলা দায়ের করেন। আদালত ঝালকাঠি থানার ওসিকে অভিযোগ এফআইআর হিসেবে রেকর্ডের নির্দেশ দেন। ওই দিন রাতেই ঝালকাঠি থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা রেকর্ড হয়। মামলা দায়েরর পর তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. মিন্টু মিয়া ঘটনাস্থল থেকে সিসিটিভির ফুটেজ হার্ডডিস্কসহ জব্দ করেন। 

মামলা দায়েরের পূর্বে ১৭/১৮ দিন ওই নারী গ্রামের বাড়িতে অবরুদ্ধ ছিলেন । গত ২০ সেপ্টেম্বর নির্যাতিত নারীর আইনজীবী মো. শফিকুল ইসলাম আসামিদের অব্যহত হুমকির কারণে আদালতে এক আবেদনে ভিকটিম পারভীনের নিরাপত্তা চেয়ে আবেদন করেন। আদালত জিআর ১৭৬/২০২০ (ঝাল) মামলার নথি তলব করে শুনানী শেষে বৃহস্পতিবার পুলিশ সুপারকে নিরাপত্তার আদেশ দেন। 

নির্যাতিত নারী পারভীন বলেন, আদালতে মামলা দায়েরের পূর্বে আমি ঝালকাঠির পুলিশ সুপারসহ নানাজনের কাছে অভিযোগ জানিয়ে কোন বিচার পাইনি। এখন আদালতই আমার শেষ ভরসা। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হাবিবুল্লাহ শুক্রবার বিকালে বলেন, আদালতের নির্দেশ এখনও আমরা হাতে পাইনি। নির্দেশ হাতে পেলে আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করা হবে।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর