শিরোনাম
প্রকাশ : ২৯ অক্টোবর, ২০২০ ১৯:২৫

বরিশালে গৃহবধূকে হাত-মুখ বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশালে গৃহবধূকে হাত-মুখ বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বাটরা গ্রামে স্ত্রী’র হাত ও মুখ বেঁধে লোহার গরম খুতি (খুন্তি) দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছ্যাকা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে। দগ্ধ ওই গৃহবধূকে চিকিৎিসা না দিয়ে ঘরে আটকে রাখার খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে তার স্বজনরা। 

নির্যাতিত গৃহবধূর নাম সমাপ্তি সরকার। তিনি ওই উপজেলার বাহাদুপুর গ্রামের সদানন্দ সরকারের মেয়ে। তার স্বামী বিপুল বালা একই উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের আহুতি বাটরা গ্রামের সদানন্দ বালার ছেলে। দুই বছর আগে সামাজিকভাবে তাদের বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে তাদের এক বছরের একটি শিশু সন্তান রয়েছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন সমাপ্তি জানান, বিয়ের পর থেকেই তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে বিপুল ও তার পরিবারের সদস্যরা তার উপর শারীরিক নির্যাতন চালায়। সব শেষে গত মঙ্গলবার রাতে বিপুল ও তার ভাইয়ের স্ত্রী ববিতার সাথে পারিবারিক নানা বিষয়ে নিয়ে বাকবিতণ্ডা হয়। এর এক পর্যায়ে বিপুল ও তার পরিবারের সদস্যরা তার হাত ও মুখ বেঁধে মারধর করে। এ সময় লোহার খুতি (খুন্তি) গরম করে তার দুই হাত ও পিঠে ছ্যাঁকা দেয় তারা। পরে তাকে ঘরে আটকে রাখে। 

সমাপ্তির ভাই সুশান্ত সরকার বলেন, প্রতিবেশীর মাধ্যমে খবর পেয়ে সমাপ্তিকে বৃহস্পতিবার সকালে শ্বশুরবাড়ি থেকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি। 

তবে এ ধরনের কোন বিষয় পুলিশের জানা নেই বলে জানিয়েছেন আগৈলঝাড়া থানার ওসি গোলাম ছরোয়ার। নির্যাতিতার পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দিলে মামলা দায়েরসহ আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন ওসি।


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর