শিরোনাম
প্রকাশ : ৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৪:০৩
প্রিন্ট করুন printer

সিরাজগঞ্জে বাতিল হল মামুনুল হকের ওয়াজ মাহফিল

অনলাইন ডেস্ক

সিরাজগঞ্জে বাতিল হল মামুনুল হকের ওয়াজ মাহফিল
মামুনুল হক। ফাইল ছবি

সিরাজগঞ্জে বাতিল হল খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ও হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের ওয়াজ মাহফিল। স্থানীয় যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের আপত্তির মুখে ওই মাহফিল বাতিল হয়।

আগামী ১৭ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার জামতৈল এলাকায় ওয়াজ মাহফিলে বক্তব‌্য দেওয়ার কথা ছিল মামুনুল হকের। ওয়াজ মাহফিলটির আয়োজক ছিল জামতৈল দারুল উলুম কওমিয়া হাফিজিয়া মাদরাসা।

আয়োজক মাদরাসার শিক্ষাসচিব মোহাম্মদ জাকারিয়া গণমাধ্যমকে বলেন, “মামুনুল হক সাহেবের ওয়াজ মাহফিলটি ক্যান্সেল হয়ে গেছে। উনি সিরাজগঞ্জে আসছেন না।”

স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির গ্রন্থণা ও প্রকাশনা সম্পাদক মনোয়ারুল ইসলাম বিপুল গণমাধ্যমকে বলেন, “সিরাজগঞ্জের সন্তান হিসেবে আমি মনে করেছি, আমাদের জেলায় মামুনুল হকের মতো উগ্র সাম্প্রদায়িক ব্যক্তির মাহফিল হতে পারে না। স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনার পর আমরা সিরাজগঞ্জ জেলা ও বেলকুচি উপজেলা কমিটিকে মামুনুল হকের বিরুদ্ধে কর্মসূচি দেওয়ার পরামর্শ দেই। আগামী শনিবার আমাদের মানববন্ধন ও সমাবেশ কর্মসূচি হওয়ার কথা ছিল। এরইমধ্যে ওয়াজ মাহফিলের আয়োজকরা মামুনুল হককে মাহফিলে আসার জন্য নিষেধ করে দিয়েছেন।”

সিরাজগঞ্জ জেলা যুবলীগ সভাপতি রাশেদ ইউসুফ জুয়েল বলেন, “আমরা আয়োজক কমিটির সঙ্গে কথা বলেছি। যে ব্যক্তি বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বুড়িগঙ্গায় ফেলে দিতে চান তাকে সিরাজগঞ্জে মাহফিল করতে দেওয়া হবে না বলে আয়োজকদের জানিয়েছি। তারা পরিস্থিতি বুঝে তাদের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছেন।”

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:১০
প্রিন্ট করুন printer

গোমাসেতুর নিচ দিয়ে লঞ্চ চলাচলের উপযোগী করে নির্মাণের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:

গোমাসেতুর নিচ দিয়ে লঞ্চ চলাচলের উপযোগী করে নির্মাণের দাবি

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রাঙ্গামাটি নদী দিয়ে ঢাকাগামী লঞ্চ চলাচলের উপযোগী করে গোমা পয়েন্টে সেতু নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয় গোমা বাজারে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 

গোমা বাজার ব্যবসায়ী কমিটির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন বাকেরগঞ্জ বাজার কমিটির সভাপতি শিপন খান। বক্তব্য রাখেন স্থানীয় বাসিন্দা ওবায়েদুল হক বাদল গাজী, মুক্তিযোদ্ধা নুর হোসেন খান, স্বপন খান, হেনোয়ার গাজী, শিক্ষক জলিল মুন্সি, আওয়ামী লীগ নেতা তোফাজ্জেল হোসেন গাজী, সাজিদ খান ও আনোয়ার হোসেন। 

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গোমা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরুর পর বাকেরগঞ্জ উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের বাসিন্দারা স্বপ্ন বুনতে শুরু করেছিল। সেতুটি নির্মাণের সময় উচ্চতার বিষয়টি চিন্তা না করেই নির্মাণ কাজ শুরু করে কর্তৃপক্ষ। গোমা সেতু যে উচ্চতায় করা হয়েছে তার নিচ দিয়ে ঢাকাগামী লঞ্চ চলাচল করতে পারবে না। এ কারণে কারিগরি জটিলতায় মাঝ পথে সেতু নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে যায়। এ অবস্থায় সেতুর নিচ দিয়ে ঢাকাগামী লঞ্চ চলাচলের ব্যবস্থা রেখে সেতুর অবশিষ্ট কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার দাবি জানান বক্তারা।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ১২:৪৮
প্রিন্ট করুন printer

কুয়েতের আদালতে এমপি পাপুলের মামলার রায় আজ

অনলাইন ডেস্ক

কুয়েতের আদালতে এমপি পাপুলের মামলার রায় আজ
ফাইল ছবি

অর্থ ও মানবপাচারের অভিযোগে গ্রেফতার বাংলাদেশের সংসদ সদস্য কাজী শহীদ ইসলাম পাপুলের মামলায় রায়ের জন্য বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) ধার্য করেছেন কুয়েতের একটি আদালত। বর্তমানে তিনি ওই দেশের কারাগারে রয়েছেন। 

গত ৬ জুন কুয়েতের মুশরিফ এলাকা থেকে মানবপাচার, ভিসা জালিয়াতি ও অর্থ পাচারের অভিযোগে পাপুলকে গ্রেফতার করে কুয়েতের পুলিশ। দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের পরে উঠে আসে কীভাবে বাংলাদেশের ওই সংসদ সদস্য মানুষকে প্রতারিত করে সম্পদের পাহাড় গড়েছেন এবং এই কাজে তাকে কুয়েতের প্রভাবশালী সরকারি কর্মকর্তারা ঘুষ, উপহার ও অন্যান্য সুযোগের বিনিময়ে সহায়তা করেছে।

মারাফি কুয়েতিয়া কোম্পানির অন্যতম মালিক পাপুলের সেখানে বসবাসের অনুমতি রয়েছে। পাপুলের কোম্পানিতে ২০ হাজার বাংলাদেশি কাজ করে। তদন্তে বের হয়ে এসেছে, পাপুল প্রতি বছর বিভিন্ন ঘুষ, উপহার ও অন্যান্য খরচ বাদ প্রায় ৬০ কোটি টাকা নেট লাভ করতেন। এছাড়া ব্যাংকে জমাকৃত পাপুলের এবং তার কোম্পানির প্রায় ৫০ লাখ কুয়েতি দিনার (প্রায় ১৪০ কোটি টাকা) ফ্রিজ করার জন্য ওই দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংককে অনুরোধ করেছেন সেখানকার পাবলিক প্রসিকিউটর।

এদিকে, কুয়েতে পাপুলের কত সম্পদ রয়েছে তার তথ্য চেয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে কুয়েতে চিঠি পাঠায় দুদক। এতে দেশে পাপুলের বিরুদ্ধে মামলা ও তদন্তের বিষয়ে উল্লেখ করে কুয়েতে থাকা পাপুলের কোম্পানি, স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ, ব্যাংক হিসাবের তথ্য ও প্রয়োজনীয় নথিপত্র চাওয়া হয়েছে।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ তাফসীর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ১২:১৯
প্রিন্ট করুন printer

স্বেচ্ছায় ভাসানচর যাচ্ছে আরও ৩ হাজার রোহিঙ্গা

অনলাইন ডেস্ক

স্বেচ্ছায় ভাসানচর যাচ্ছে আরও ৩ হাজার রোহিঙ্গা

কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফের বিভিন্ন ক্যাম্প থেকে তৃতীয় দফায় আরও প্রায় তিন হাজার রোহিঙ্গাকে নোয়াখালীর ভাসানচরে স্থানান্তর করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে এসব রোহিঙ্গাকে চট্টগ্রামের উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হবে। শুক্রবারও এ প্রক্রিয়া চলবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার অতিরিক্ত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার শামসু দ্দৌজা নয়ন।

তিনি জানান, স্বেচ্ছায় যেতে আগ্রহী এমন প্রায় তিন হাজার রোহিঙ্গার তালিকা তৈরি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে তাদের অনেককে উখিয়া ডিগ্রি কলেজ মাঠ ও ঘুমধুম ট্রানজিট ক্যাম্পে নেওয়া হয়েছে। সেখান থেকে তাদের চট্টগ্রাম নিয়ে যাওয়া হবে।

প্রথমে ক্যাম্প থেকে চট্টগ্রামে নৌবাহিনীর জেটি ঘাটে পরে সেখান থেকে ট্রলারে করে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হবে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ৪ ডিসেম্বর প্রথম ধাপে ১ হাজার ৬৪২ জন এবং ২৯ ডিসেম্বর দ্বিতীয় ধাপে ১ হাজার ৮০৪ জনসহ মোট ৩ হাজার ৪৪৭ জন রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হয়। এছাড়াও, আরও আগে থেকে সেই দ্বীপে ৩০৫ জন রোহিঙ্গা ছিলেন, যাদের সাগর থেকে উদ্ধার করে সেখানে আশ্রয় দেওয়া হয়েছিল।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ০৯:৪৩
প্রিন্ট করুন printer

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে পৃথক হামলার ঘটনায় ২টি মামলা দায়ের

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে পৃথক হামলার ঘটনায় ২টি মামলা দায়ের

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বাঘাইর এলাকার এক যুবককে হত্যার চেষ্টা ও মনতলা দক্ষিণপাড়া এলাকার মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব ঘটনায় বুধবার সকালে কালিয়াকৈর থানায় পৃথক দুটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আহত যুবকরা হলেন কালিয়াকৈর উপজেলার বাঘাইর এলাকার আশরাফুল আলমের ছেলে রাসেল মোল্লা (৩০) ও একই ইউনিয়নের মনতলা দক্ষিণপাড়া এলাকার সদর আলীর ছেলে ফজর আলী (৩৪)।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, উপজেলার বাঘাইর এলাকার আশরাফুল আলম ও তার পরিবারের সঙ্গে তাদের প্রতিবেশী  হাসেন আলী ও কলিম উদ্দিন এবং অপর প্রতিবেশী সুরুজ মিয়া ও ইমান আলীর দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ কারণে তারা প্রতিবেশী আশরাফুল আলম ও তার পরিবারের উপর বিভিন্নভাবে অন্যায় অত্যাচার করে আসছে। এর জের ধরে গত সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে একটি গানের অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পথে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা হাসেন ও তার ভাই কলিম এবং সুরুজ ও ইমানসহ তাদের সহযোগীরা রাসেলের উপর হামলা করে। এসময় তারা তাকে এলোপাথাড়ি মারধর করে জখম করে। পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় আহত রাসেলের বাবা আশরাফুল আলম বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অপর দিকে উপজেলার মনতলা দক্ষিণপাড়া এলাকার সদর আলীর ছেলে ফজর আলী তার ব্যবসায়িক কাজে মঙ্গলবার রাত পাশের মনতলা বাজারে যান। এসময় তার পথরোধ করে মনতলা এলাকার মৃত শুকুর মিয়ার দুই ছেলে বাদশা মিয়া ও তোতা মিয়া তার উপর হামলা চালায়। পরে তারা তাকে এলোপাথাড়ি মারধর করে গুরুতর জখম করে। তার সাথে থাকা টাকা লুট করে। তার ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় আহত ফজর আলী বুধবার সকালে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, পৃথক হামলার ঘটনায় থানায় দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ০৯:২৩
প্রিন্ট করুন printer

জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক

জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার
প্রতীকী ছবি

চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলা থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) এক সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের (এটিইউ) সদস্যরা। মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) রাত ৯টার দিকে চাঁদপুরের কচুয়া থানাধীন মাসনীগাছা বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার এবিটি সদস্য আফজাল হোসেন দেশে কথিত ইসলামী খেলাফত প্রতিষ্ঠা করার উদ্দেশে সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধমে (ফেসবুক, টুইটার, হোয়াটসঅ্যাপ) উগ্রবাদী মতবাদের প্রচারণা চালাতেন। এসময় তার কাছ থেকে উগ্রবাদী প্রচার-প্রচারণায় ব্যবহৃত একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) ভোর ৫টার দিকে অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের (মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস) সহকারী পুলিশ সুপার ওয়াহিদা পারভীন জানান, গ্রেফতার আফজাল আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের প্রধান শাইখ মুফতি জসীম উদ্দিন রাহমানীর জিহাদ বিষয়ক লেকচারের ভিডিও প্রচার করতেন। এছাড়াও তিনি খেলাফত প্রতিষ্ঠার জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করছিলেন। তিনি রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্র, হত্যাসহ বিভিন্ন মানুষকে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে প্ররোচিত করার কাজটি করছিলেন। গ্রেফতার আফজালের বিরুদ্ধে কচুয়া থানা সন্ত্রাস বিরোধী আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ তাফসীর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর