শিরোনাম
প্রকাশ : ৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:২১
আপডেট : ৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:৩৮
প্রিন্ট করুন printer

মাদারীপুরে চুরির অভিযোগে স্কুলছাত্রকে নির্যাতন

মাদারীপুর প্রতিনিধি:

মাদারীপুরে চুরির অভিযোগে স্কুলছাত্রকে নির্যাতন

মাদারীপুরের ডাসারে চুরির অভিযোগে আসিক চৌকিদার (১৪) নামে এক স্কুলছাত্রকে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে রেজাউল করিম ভাষাই নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। আহত অবস্থায় ওই স্কুলছাত্রকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে এ নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। 

নির্যাতনের শিকার স্কুলছাত্র খৈয়ারভাঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। নির্যাতনের ঘটনার তিব্র নিন্দা জানিয়েছেন বিভিন্ন সচেতন মহল।

নির্যাতিত স্কুলছাত্রের পরিবার ও এলাকা সূত্রে জানা গেছে, ডাসার এলাকার কোমলাপুর বাজারের কালাই শিকদারের হার্ডওয়ারের দোকানে চুরি হয়। এ চুরির ঘটনার অভিযোগে এলাকার পুর্বকমলাপুর গ্রামের হিমজাল চোকিদারের স্কুল পড়ুয়া ছেলে আসিক চৌকিদারকে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে বাজার থেকে তুলে নিয়ে রেজাউল করিম ভাষাইয়ের নেতৃত্বে তার নিজ ঘরে বসে বোনজামাই আবু হাওলাদার, স্ত্রী পারভিন ও এমদাত সরদারসহ ৫-৬ জন মিলে লাঠিয়ে দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে ভর্তিতে বাধা প্রদান করে ভাষাই ও তার লোকজন। নির্যাতিত স্কুলছাত্রের স্বজনদের সহযোগিতায় অবশেষে ভর্তি করা হয়।

মানবাধিকার কর্মী মিঠুসহ বেশ কয়েকজন বলেন, একজন স্কুলছাত্রকে চুরির অভিযোগে এভাবে নির্যাতন করা ঠিক হয়নি। দেশে আইন আছে। তারা ব্যবস্থা নিতে পারত। আইন নিজের হাতে ভাষাইয়ের এভাবে তুলে নেয়া ঠিক হয়নি। আমরা এ ঘটনার তিব্র নিন্দা জানাই।

স্কুলছাত্রের বাবা হিমজাল চৌকিদার বলেন, আমার ছেলেকে চুরির অভিযোগে ভাষাই ও তার লোকজন নির্যাতন করেছে।

অভিযুক্ত রেজাউল করিম ভাষাই বলেন, চোর মারলে কি হয়। তাই মারা হয়েছে।

ডাসার থানার ওসি মুহম্মদ আবদুল ওহাব বলেন, বিষয়টি শুনেছি। পরিবার অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর