শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:৩৮
প্রিন্ট করুন printer

চৌদ্দগ্রামে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে উপবৃত্তির টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

কুমিল্লা প্রতিনিধি

চৌদ্দগ্রামে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে উপবৃত্তির টাকা আত্মসাতের অভিযোগ
প্রধান শিক্ষক মো. আবুল কাশেম।

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে শিক্ষার্থীর অভিভাবকের মোবাইল ফোন নম্বর কেটে নিজের নম্বর দিয়ে উপবৃত্তির টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

উপজেলার কাশিনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবুল কাশেমের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ পাওয়া গেছে। সম্প্রতি নাসরিন আক্তার নামের এক অভিভাবক উপজেলা শিক্ষা অফিসে অভিযোগ দেন। 

অভিযোগে অভিভাবক নাসরিন আক্তার উল্লেখ করেন, তিনি কাশিনগর ইউনিয়নের বারইয়া গ্রামের বাসিন্দা। তার মেয়ে কাশিনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী। ২০১৯ সাল থেকে দীর্ঘ দুই বছর যাবৎ তার মেয়ে উপবৃত্তি পাচ্ছে না। এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেমের সাথে আলাপ করলে তালিকা দেখবেন বলে আশ্বাস দেন। এভাবে কয়েকবার যোগাযোগ করেও সন্তোষজনক জবাব পাওয়া যায়নি।

স্কুল কমিটির সদস্যরা উপবৃত্তির তালিকা যাছাই-বাছাই করে দেখেন যে প্রধান শিক্ষক অভিভাবক নাসরিন আক্তারের মোবাইল ফোন নম্বরটি কেটে প্রধান শিক্ষকের নিজ মোবাইল ফোন নম্বর লিখে দেন। এভাবে আরও কয়েকটি নম্বর কেটে নিজের মোবাইল ফোন নম্বর ব্যবহার করে উপবৃত্তির টাকা ভোগ করছেন তিনি।

২০১৯ সালের দ্বিতীয় শ্রেণির তালিকায় শিক্ষার্থীর নাম রহিমা, মাতা হনুফা। সেখানে ব্যবহৃত নম্বরটিও প্রধান শিক্ষকের পরিবারের। প্রধান শিক্ষকের পরিবারের ৮-১০টিরও অধিক সিম রয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। 

অভিযোগের বিষয়ে কাশিনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবুল কাশেম বলেন, ‘আমার চাকরির বয়স শেষ পর্যায়ে। উপবৃত্তির তালিকায় আমার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নম্বরটি কিভাবে বসেছে তা জানি না। তাছাড়া মোবাইল ফোন নম্বরটিও দুই বছর যাবৎ বন্ধ রয়েছে।

এ ব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সাকিনা বেগম বলেন, ‘আমরা অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।’

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর