শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২২:১১
প্রিন্ট করুন printer

নন্দীগ্রামে ছাত্রলীগের ১২ কর্মীর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া:

নন্দীগ্রামে ছাত্রলীগের ১২ কর্মীর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলায় বিএনপি নেতার বাড়ি নির্মাণ কাজে চাঁদা দাবি করার অভিযোগ এনে ১২ যুবকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা দায়েরের পর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে। তবে পুলিশ বলছে, দায়ের করা মামলায় অভিযুক্তদের রাজনৈতিক পরিচয় জানা নেই। 

শনিবার সকালে বগুড়ার নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, শুক্রবার রাতে নন্দীগ্রাম সদর ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ও ৬ নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ বাদী হয়ে এ মামলা করেন। গ্রেফতারকৃতরা হলেন উপজেলার ছোট ডেরাহাড় গ্রামের আব্দুস সামাদ (২৫) ও আতোয়ার রহমান (২৪)।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, নন্দীগ্রাম সদর ইউনিয়নের ছোট ডেরাহাড় গ্রামে ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য আব্দুর রশিদ ইট দিয়ে বাড়ি নির্মাণ করছিলেন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় আল-জাহিদসহ ১২ জন যুবক গিয়ে নিজেদেরকে ছাত্রলীগ কর্মী হিসেবে পরিচয় দেয়। পরে বাড়ি নির্মাণ করার কারণে ৩০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। এই টাকা না দিলে বাড়ি নির্মাণ করতে নিষেধ করে তারা। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বিএনপির নেতা আব্দুর রশিদের ভাতিজা সোহান আলীকে মারধর করে। পরে আহত সোহান আলীকে (২৫) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় আব্দুর রশিদ বাদী হয়ে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক ও ছাত্রলীগ কর্মী আল-জাহিদসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে নন্দীগ্রাম থানায় চাঁদাবাজির মামলা করেছেন।

নন্দীগ্রাম উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তুহিন আহমেদ বলেন, চাঁদাবাজির ঘটনা মিথ্যা। ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে এ মামলা করা হয়েছে। 

বগুড়ার নন্দিগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম জানান, চাঁদাবাজি মামলায় দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এজাহারভুক্ত আসামিদের গ্রেফতার করতে পুলিশ মাঠে রয়েছে। তবে দায়ের করা মামলায় অভিযুক্তদের রাজনৈতিক পরিচয় জানা নেই।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর