শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ মার্চ, ২০২১ ১২:১৯
প্রিন্ট করুন printer

চোখের জ্বালা সইতে না পেরে গৃহবধূর আত্মহত্যা!

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর:

চোখের জ্বালা সইতে না পেরে গৃহবধূর আত্মহত্যা!
প্রতীকী ছবি

রাত পার হলেই চোখের অপারেশন হওয়ার কথা ছিল যশোরের মণিরামপুর উপজেলার উত্তর বাহাদুরপুর গ্রামের চায়না বেগমের (৫০)। কিন্তু যন্ত্রণা সইতে না পেরে তার আগেই ঘরের আড়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করলেন তিনি। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। চায়না বেগম উত্তর বাহাদুরপুর গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রহমানের স্ত্রী।

আব্দুর রহমান বলেন, ১২/১৩ দিন আগে হঠাৎ ডান চোখের দৃষ্টি হারিয়ে ফেলেন চায়না বেগম। এরপর থেকে চোখে মারাত্মক যন্ত্রণা হতে থাকে। স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা করিয়েও কোন কাজ হয়নি। মঙ্গলবার সকাল থেকে যন্ত্রণা বাড়তে থাকে। টাকা-পয়সা যোগাড় করে বুধবার যশোরে চোখ অপারেশন করাতে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। সোমবার দুপুরে বাড়ি থেকে খাবার খেয়ে বাজারে যাই। সেখান থেকে খবর পেয়ে বাড়ি এসে চায়না বেগমকে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখি। 

মণিরামপুর থানার এসআই নাজমুল সাকিব বলেন, চোখের যন্ত্রণা সইতে না পেরে চায়না বেগম আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। এটি হত্যা না আত্মহত্যা, তা নিশ্চিত হতে মরদেহ যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে মণিরামপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর