শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ মার্চ, ২০২১ ১৮:৪২
প্রিন্ট করুন printer

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নদীতে লাফ, ১৪ ঘণ্টা পর কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

নাজমুল হুদা, সাভার

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নদীতে লাফ, ১৪ ঘণ্টা পর কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার
Google News

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ব্রিজ থেকে নদীতে লাফ দিয়ে পানিতে পড়ে নিখোঁজ হন বিকাশ নামের এক শিক্ষার্থী। এঘটনার ১৪ ঘণ্টা পর তার মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

বিকাশ ইসলাম কুষ্টিয়া জেলার আমান উল্লাহর ছেলে। সে রেডিওকলোনি এলাকায় মোকছেদ মিয়ার বাড়িতে বাবা-মায়ের সঙ্গে ভাড়া থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষে লেখাপড়া করত।
স্থানীয়রা জানান, রেডিওকলোনি এলাকা থেকে রবিবার সন্ধ্যায় নিখোঁজ হয় বিকাশ। পরে তার জুতা সাভারের নামাবাজার এলাকার বংশী নদী থেকে উদ্ধার করা হয়। সেই জুতা দেখেই বিকাশ ইসলাম নদীতে ঝাঁপ দিয়েছে বলে নিশ্চিত হয় স্বজনরা। 

তার ফেসবুকে স্ট্যাটাস হুবুহুব তুলে ধরা হলো  কৃতজ্ঞতা জানাই আমার পরিবার, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও আমার প্রিয় মানুষটাকে। আমার কারো প্রতি কোনো ক্ষোভ, রাগ, অভিমান নাই। যা করছি বাস্তবতার সাথে তাল না মেলাতে পারার জন্যই করছি। আমি হেরে গেছি, আমি ব্যর্থ। অনেক ইচ্ছা ছিল নিজে কিছু করে বাবা-মার সেবা যত্ন করার। কিন্তু বাস্তবতা আসলেই কঠিন যা অনেকে মেনে নিতে পারে আবার অনেকে পারে না। আমি না পারার দলেই পড়লাম। মা পারলে মাফ করে দিয়ো।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, রাতে আলো স্বল্পতার কারণে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করা সম্ভব হয়নি। তবে সকাল থেকে উদ্ধার অভিযান শুরু করে ডুবুরি দল। ১০ ঘণ্টা পর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নিহতের মরদেহ বংশী নদী থেকে উদ্ধার করা হয়।

সাভার ফায়ার সার্ভিসের কর্তব্যরত কর্মকর্তা হাসিবুল হাসান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ১০ ঘণ্টা পর বিকাশ ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ এফএম সায়েদ বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, এই ঘটনার খুব ভালো ভাবে তদন্ত করা হচ্ছে যদি কোন অভিযোগ থাকে তাহলে থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত করে দেখবো।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর