শিরোনাম
প্রকাশ : ৫ মে, ২০২১ ২১:২৩
প্রিন্ট করুন printer

বালিয়াডাঙ্গীতে মাকে হত্যার অভিযোগ সৎ ছেলের বিরুদ্ধে

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

বালিয়াডাঙ্গীতে মাকে হত্যার অভিযোগ সৎ ছেলের বিরুদ্ধে
Google News

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে সৎ মাকে হত্যার পর বাড়ির পার্শ্বের আম বাগানে ফেলে রাখার অভিযোগ উঠেছে সোহেল রানা (৩৫) নামে এক প্রাইমারী স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

বুধবার সকালে উপজেলার বড়পলাশবাড়ী ইউনিয়নের বাদামবাড়ী বাজারের পার্শ্বে দাড়িয়াবস্থী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মায়ের নাম পারভীন আক্তার (৫০)। তিনি ওই গ্রামের ইসরাইল হকের ২য় স্ত্রী ও উপজেলার দুওসুও ইউনিয়নের মহিষমারী গ্রামের কাসেম হাজীর মেয়ে।

সোহেল রানা উপজেলার বাদামবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

বুধবার দুপুরে আম বাগান থেকে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে বালিয়াডাঙ্গী থানা পুলিশ। এর আগে মঙ্গলবার রাত থেকে নিখোঁজ ছিলেন ওই নারী।

মেয়ের মা ফেন্সি বেগম অভিযোগ করেন, দীর্ঘদিন ধরে আমার মেয়ের খাওয়া-দাওয়া বন্ধসহ নানা ভাবে অত্যাচার করে আসছিল সৎ ছেলে সোহেল রানা। তাকে হত্যার পর বাগানে ফেলে রেখে আমাদের খবর দিয়েছে। আমি আমার মেয়ে হত্যার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

স্থানীয় চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি পুলিশ তদন্ত করছে। ইতোমধ্যে সোহেল রানা ও তার বাবা ইসরাইল হককে (৬৪) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়েছে পুলিশ।

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি হাবিবুল হক প্রধান বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর

এই বিভাগের আরও খবর