শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ মে, ২০২১ ২৩:৪২
আপডেট : ২৮ মে, ২০২১ ২৩:৪৫
প্রিন্ট করুন printer

১৫০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে বানর উদ্ধার

শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি

১৫০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে বানর উদ্ধার
Google News

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দেখে প্রায় ১৫০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে একটি বিপন্ন প্রজাতির লজ্জাবতী বানর উদ্ধার করলো দুই প্রাণীপ্রেমী।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার লাউরগড় গ্রাম থেকে বানরটি উদ্ধার করে শ্রীমঙ্গলে নিয়ে আসা হয়। বানরটিকে ওই গ্রামের বাবুল মিয়ার বাড়িতে খাঁচায় আটকে রাখা হয়েছিল।

উদ্ধার হওয়া লজ্জাবতি বানরটিকে এখন মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের জানকিছড়ায় বন্যপ্রাণী রেসকিউ সেন্টারে রাখা হয়েছে।

উদ্ধার অভিযানে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্ট্যান্ড ফর আওয়ার অ্যান্ডেঞ্জার্ড ওয়াইল্ডলাইফ (এসইডাব্লিউ)-এর সাথে অংশ নেন স্থানীয় প্রকৃতি ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ বিভাগের বনকর্মীরা।

লজ্জাবতী বানরটিকে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের জানকিছড়ায় বন্যপ্রাণী রেসকিউ সেন্টারে রাখা হবে। শারীরিক অবস্থা ভালো থাকলে শনিবার লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত করা হবে।

স্ট্যান্ড ফর আওয়ার অ্যান্ডেঞ্জার্ড ওয়াইল্ডলাইফ’র সদস্য খোকন থৌনাউজম ও সোহেল শ্যাম জানান, গত বৃহস্পতিবার ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পারেন সুনামগঞ্জে বাবুল মিয়ার বাড়িতে একটি  লজ্জাবতী বানর আটকে রাখা হয়েছে। খবর পেয়ে প্রথমে তারা বাবুল মিয়ার সাথে যোগাযোগ করে তাকে বুঝিয়ে বানরটি ছেড়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। এতে তারা সফল না হওয়ায় বিষয়টি বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রেজাউল করিমকে জানান এবং বানরটি উদ্ধারে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

পরে বন কর্মকর্তা রেজাউল করিমের সহযোগিতায় বন বিভাগের আনিসুজ্জামান (ফরেস্টার, জানকিছড়া), তাজুল ইসলাম ও টিপলু দেবকে সাথে নিয়ে তারা শ্রীমঙ্গল থেকে সুনামগঞ্জ যান। সন্ধ্যায় লজ্জাবতি বানরটি উদ্ধার করে নিয়ে আসেন।

বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রেজাউল করিম চৌধুরী জানান, ‘লজ্জাবতি বানরটি এখন আমাদের রেসকিউ সেন্টারে আছে। দুই একদিন দেখে বনে অবমুক্ত করে দেব।’

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর