শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ জুন, ২০২১ ২২:০২
প্রিন্ট করুন printer

শুক্রবার দিনের চোর আতঙ্কে বুড়িচংয়ের ব্যবসায়ীরা!

মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা:

শুক্রবার দিনের চোর আতঙ্কে বুড়িচংয়ের ব্যবসায়ীরা!
Google News

কুমিল্লার বুড়িচংয়ে সম্প্রতি মোবাইল ফোন ও বিকাশের কয়েকটি দোকানে চুরির ঘটনা ঘটেছে। সবগুলো চুরি শুক্রবার জুমার নামাজের বিরতিতে হয়েছে। উপজেলার ভারেল্লা, নিমসার, আবিদপুর, কংশনগর, কালিরবাজার ও গোপিনাথপুরে এসব ঘটনা ঘটে। এনিয়ে বুড়িচং থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে। সাথে জমা দেয়া হয়েছে সিসিটিভির ফুটেজও ছবি। অভিযোগের প্রায় দুই মাসেও কোন অপরাধী ধরা পড়েনি। বুড়িচংয়ের বিভিন্ন বাজারের ব্যবসায়ীরা রয়েছেন শুক্রবার আতঙ্কে।

ব্যবসায়ীদের সূত্র মতে, ২৩ এপ্রিল শুক্রবার ১.২০ মিনিটে আবিদপুর বাজারের মা টেলিকমে চুরি হয় প্রায় দুই লাখ টাকা। একই তারিখে ১.২৫ মিনিটে কংশনগর বাজারের জহির হার্ডওয়ারে চুরি হয় এক লাখ টাকা। ৩০ এপ্রিল চুরি হয় ভারেল্লা বাজারের ছাত্রবন্ধু মোবাইল সার্ভিস সেন্টারে ১.১৮ মিনিটে প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকা। একইদিন ১.২২মিনিটে চুরি হয় নিমসার বাজারের রাজিব টেলিকমে প্রায় আড়াই লাখ টাকা। ৭ মে ১.২০ মিনিটে চুরি হয় গোপিনাথপুরের রাসেল টেলিকমে প্রায় দেড় লাখ টাকা। ২১ মে ১.২৫মিনিটে চুরি হয় কালির বাজারের তাবিব টেলিকমে দুই লাখ ত্রিশ হাজার টাকা। এছাড়া আরো কয়েকটি দোকানে চুরির ঘটনা ঘটে। 

উপজেলার ভারেল্লা বাজারের ছাত্রবন্ধু মোবাইল সার্ভিস দোকানের ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম জানান, তিনি ৩০ এপ্রিল দোকান বন্ধ করে নামাজে গেছেন। পৌনে ২টায় দোকানে এসে দেখেন সার্টারের তালা ভাঙ্গা। দোকানে ঢুকে দেখেন ক্যাশে থাকা নগদ এক লাখ ৮০ হাজার টাকা, ৩০ হাজার টাকার মোবাইল কার্ড, ফোন সেটসহ সাড়ে তিন লাখ টাকার মালামাল নেই। সিসিটিভি ফুটেজ চেক করে দেখেন কিছু লোক তার গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে ১.১৩ মিনিটে তালা ভেঙ্গে দোকানে প্রবেশ করে। পাঁচ মিনিটে তাদের অভিযান শেষ করে। বুড়িচং থানার দেবপুর ফাঁড়িতে অভিযোগ দিয়েছেন। এসআই ডালিম তদন্ত করে গেছেন। ছবি এবং ফুটেজ সরবরাহ করা হয়েছে। দীর্ঘদিনেও অপরাধীরা ধরা পড়েনি।

আবিদপুর বাজারের মা টেলিকমের ব্যবসায়ী শাখাওয়াত হোসেন বলেন, ২৩ এপ্রিল শুক্রবার ১.২০ মিনিটে মা টেলিকমে চুরি হয় প্রায় দুই লাখ টাকা। ২৬ এপ্রিল থানায় অভিযোগ করেন। ছবি ও ফুটেজও সরবরাহ করেছেন। কিন্তু কোন অপরাধী আটক হয়নি। এই চক্রকে এখনি না থামালে আরো ব্যবসায়ীদের ক্ষতি করবে।

বুড়িচং থানার ওসি মো. আলমগীর হোসেন বলেন, দোকানে চুরির বিষয়টি তার জানা নেই। থানায় অভিযোগ এসেছে কিনা খতিয়ে দেখতে হবে। এবিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 

এই বিভাগের আরও খবর