শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ জুলাই, ২০২১ ১৬:৩২
প্রিন্ট করুন printer

বগুড়ায় শিশু হত্যার রহস্য উদঘাটন, গ্রেফতার ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া:

বগুড়ায় শিশু হত্যার রহস্য উদঘাটন, গ্রেফতার ৩
প্রতীকী ছবি
Google News

বগুড়ার শিবগঞ্জের মাদরাসাছাত্র স্বাধীন (৭) হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে সিআইডি। মাদরাসা বন্ধ করতেই স্বাধীনের তিন সহপাঠী শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করে।মঙ্গলবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে গ্রেফতারকৃত তিনজন। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে- একই মাদরাসার ছাত্র সুমন ইসলাম (১৬), রুহুল আমিন (১৬) এবং ওমর ফারুক (১৫)।

মঙ্গলবার রাতে সিআইডি বগুড়া জেলার বিশেষ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কাউছার শিকদার জানান, ৫ জুলাই সন্ধ্যার পর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডি পুলিশ পরিদর্শক খন্দকার ফুয়াদ রুহানি'র নেতৃত্বে একটি বিশেষ টিম নিজ নিজ বাড়ি থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন ছাত্রকে আটক করেন। জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত তিনজন জানায় যে, তাদের মাদরাসায় লেখাপড়া করতে ইচ্ছে করতো না। তারা পরিকল্পনা করে মাদরাসার একজন শিশু ছাত্রকে হত্যা করলে প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাবে। পরিকল্পনা অনুযায়ী চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারি সন্ধ্যার পর স্বাধীনকে একাকি পেয়ে ওই মাদরাসা সংলগ্ন নদীর পাড়ে নিয়ে গিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে গ্রেফতারকৃত তিনজন।

মঙ্গলবার (৬ জুলাই) তাদেরকে আদালতে হাজির করা হয়। পরে তাদের জবানবন্দি ১৬৪ ধারায় রেকর্ড করে যশোর সেফহোমে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।
হত্যাকাণ্ডে জড়িত সুমন ইসলাম শিবগঞ্জ থানা এলাকার তালপুকুরিয়া গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে, রুহুল আমিন একই থানা এলাকার মাটিয়ান গ্রামের মেহেদুল ইসলামের ছেলে এবং ওমর ফারুক একই থানা এলাকার বাহাদুরপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে।

শিবগঞ্জে চাঞ্চল্যকর স্বাধীন হত্যাকান্ডের পর তার বাবা শাহ আলম শেখ বাদী হয়ে গত ১৭ জানুয়ারি শিবগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হওয়ার পরও থানা পুলিশ কোনো তথ্য উদঘাটন করতে না পারায় বাদীর আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালতের আদেশে সিআইডি বগুড়া জেলা মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে। তদন্তকারী অফিসার হিসেবে পুলিশ পরিদর্শক খন্দকার ফুয়াদ রুহানিকে নিযুক্ত করেন।
সিআইডি বগুড়া জেলার তদন্তকারী অফিসার গত ১৩ মার্চ মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার 

এই বিভাগের আরও খবর