৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২১:৫৪

দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ট্রাকে চাঁদাবাজি, গ্রেফতার ৭

রাজবাড়ী প্রতিনিধি

দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ট্রাকে চাঁদাবাজি, গ্রেফতার ৭

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় ঢাকামুখী পণ্যবাহী ট্রাকে চাঁদাবাজির অভিযোগে ৭ যুবককে গ্রেফতার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ। সোমবার দিবাগত মধ্যরাতে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

গ্রেফতারকৃতরা হলেন গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের রহমান মন্ডলের ছেলে শুভ মন্ডল (২০), সালাম সরদারের ছেলে মো. জাহিদ সরদার (৩৫), মোস্তফা সরদারের ছেলে মনিরুল ইসলাম রনি (২০), আ. ছালাম মোল্লার ছেলে সাকিব মোল্লা (২০), মৃত শুকুরআলী শেখের ছেলে জাকির হোসেন (৩০), মৃত বারেক শেখের ছেলে নান্নু শেখ (৩৫) এবং আজগর প্রামানিকের ছেলে মো. সেলিম প্রামানিক (৩৪)।

মামলার এহাজার সূত্রে জানা যায়, রুহুল আমিন নামে এক ট্রাক ড্রাইভার সাতক্ষীরা থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে সোমবার দিবাগত রাত ২টার দিকে দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় আসেন। রাত সোয়া ২টার দিকে দৌলতদিয়া হ্যাচারির সামনে মহাসড়কের সৃষ্ট যানজটে আটকা পড়েন। এ সময় ১৪-১৫ জনের সংঘবদ্ধ একটি দালালচক্র তার মুরগীবাহী ট্রাকে ৪ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাদের উপর চরাও হয় এবং হামলা করে। এ সময় অন্য এক ট্রাক চালক গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশের গাড়ি দেখে পুলিশকে খরর দেয়। ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুল্লাহ আল তায়েবীরসহ অন্য পুলিশ সদস্যরা দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে ট্রাক চালকদের সহায়তায় দালাল চক্রের ৭ সদস্যকে গ্রেফতার করে।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুল্লাহ আল তায়েবীর বলেন, নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে পুলিশ দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় কাজ করছিলো। এমন সময় এক ট্রাক ড্রাইভার চাঁদা দাবির বিষয়টি পুলিশকে বললে পুলিশ তাদের আটক করে। পরে রুহুল আমিন চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করলে চাঁদাবাজি মামলায় আসামিদের গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় পলাতক অন্য আসামিদের গ্রেফতারের  চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর