৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৫:১১

দীর্ঘদিন পর প্রাণচঞ্চলতা ফিরেছে ঝিনাইদহের বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

দীর্ঘদিন পর প্রাণচঞ্চলতা ফিরেছে ঝিনাইদহের বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে

প্রাণচঞ্চলতা ফিরেছে ঝিনাইদহের বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে

সারাদেশের ন্যায় ঝিনাইদহেও চালু করা হয়েছে বিনোদন কেন্দ্রগুলো। দীর্ঘদিন পর প্রাণচঞ্চলতা ফিরেছে বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে। আসতে শুরু করেছে ভ্রমণপিপাসুরা।

করোনার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে আর দর্শনার্থী আকৃষ্ট করতে নতুন করে সাজানো হচ্ছে পার্কগুলো। করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পার্ক চালানোর আশ্বাস সংশ্লিষ্টদের।

দীর্ঘ ঘরবন্দি জীবন থেকে একটু পরিত্রাণ পেতে ঝিনাইদহের জোহান ড্রীম ভ্যালী পার্ক, তামান্না ওয়ার্ল্ড ফ্যামেলী পার্কসহ বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে আসছে দর্শনার্থীরা। পরিবার-পরিজন নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিনোদন উপভোগ করছেন আগতরা। সাথে এসেছে শিশুরাও। মেতেছে নৌকাভ্রমণ, রোলার কোস্টার, নাগরদোলাসহ বিভিন্ন রাইডে। কেউ শুনছেন গান।

শিশুদের সাথে এসে এ সুযোগ একেবারেই হাতছাড়া করতে রাজি নন বড়রাও। শহুরে যান্ত্রিক জীবন আর করোনায় ঘরবন্দি থাকার পর একটু বিনোদন পেয়ে খুশি তারাও। সরেজমিনে পরিদর্শনে গিয়ে এমনটিই দেখা গেছে।

পার্কের কর্মচারিরা জানান, বিনোদন কেন্দ্রগুলো বন্ধ থাকায় আয় রোজগার তেমন হয়নি। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পার্কগুলো খুলে দেওয়ার সিন্ধান্তে আমরাও খুশি হয়েছে।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ জোহান ড্রীম ভ্যালী পার্ক এন্ড রিসোট সেন্টারের সত্ত্বাধিকারী মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, করোনায় দফায় দফায় লকডাউনে বন্ধ থাকার পর আর্থিক বিপর্যয় কাটানোটাই বড় চ্যালেঞ্জ। তবুও সরকারের এই সিদ্ধান্তের কারণে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিনোদন কেন্দ্র চালানো হচ্ছে।

জেলা প্রশাসনের তথ্যমতে, ঝিনাইদহ সদরসহ ৬টি উপজেলায় ছোট-বড় বিনোদন কেন্দ্র রয়েছে ৬টি। আর এর সাথে জড়িত কর্মকর্তার-কর্মচারির সংখ্যা আড়াইশ' জনের বেশি। পার্কগুলিতে মনিটরিং করা হচ্ছে বলে দাবি জেলা প্রশাসনের। 


বিডি প্রতিদিন / অন্তরা কবির 

 

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর