৭ অক্টোবর, ২০২১ ২২:১৭

ছিনতাইয়ের নাটক করে দুলাভাইয়ের পাঁচ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা, গ্রেফতার ২

বোয়ালমারী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি

ছিনতাইয়ের নাটক করে দুলাভাইয়ের পাঁচ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা, গ্রেফতার ২

ফরিদপুরের মধুখালিতে শ্যালক কর্তৃক ছিনতাইয়ের নাটক করে দুলাভাইয়ের পাঁচ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ দুই জনকে গ্রেফতার করেছে।

থানা সূত্রে জানা যায়, ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা এফ এম এ মুছা (৫০) পেশায় একজন স্কুল শিক্ষক। স্থানীয় ভীমপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে তিনি শিক্ষকতা করেন। বছর খানেক পূর্বে তিনি তার চাচাতো শ্যালক রাজবাড়ী জেলার উদয়পুর গ্রামের বাসিন্দা অনিক ইসলাম রনির নিকট থেকে দশ লাখ টাকা ধার দেন। এরপর তিনি সেই টাকা পরিশোধও করে দেন। টাকা লেনদেন সংক্রান্ত উভয়ের মধ্যে একটা সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে রনি তার দুলাভাই এফ এম এ মুছার নিকট ভেকু ক্রয়ের কথা বলে পাঁচ লাখ টাকা ধার চায়। গত ৫ অক্টোবর বিকেল পৌনে ছয়টার দিকে মধুখালি উপজেলা পরিষদের মূল প্রবেশ পথের একশ গজ পূর্বে বনমালিদিয়া নামক স্থান থেকে এফ এম এ মুছা তার শ্যালক রনিকে পাঁচ লাখ টাকা দেন। এ সময় মধুখালি থেকে ফরিদপুরগামী একটি মোটরসাইকেলের দুই আরোহী রনির হাত থেকে টাকার ব্যাগটি নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে এফ এম এ মুছা মধুখালি থানায় এ ব্যাপারে অভিযোগ দায়ের করেন। ব্যাপক তদন্ত শেষে থানা পুলিশ নিশ্চিত হয় ছিনতাইয়ের বিষয়টি রনির সাজানো নাটক। 

জিজ্ঞাসাবাদে রনি স্বীকার করে যে সে আর্থিক সংকটের কারণে এই ছিনতাই নাটক ঘটিয়েছে। এরপর রনির স্বীকারোক্তি মোতাবেক টাকা ছিনতাই নাটকের সাথে জড়িত রাজবাড়ী জেলার সদর থানার উদয়পুর গ্রামের আকবর হোসেন চানের ছেলে জাকির হোসেন সবুজ (২৫)কে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর সহযোগী একই জেলার সদর থানাধীন রাজাপুর গ্রামের শুকুর আলী মোল্যার ছেলে মাসুদ মোল্যার (৩৭) বাড়ি থেকে ছিনতাই নাটকে অংশ নেয়া ডিসকভার মোটরসাইকেল এবং ছিনতাইকৃত পাঁচ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ওই স্কুল শিক্ষক এফ এম এ মুছা বাদি হয়ে মধুখালি থানায় বুধবার (৬ অক্টোবর) মামলা করেছেন।

এ ব্যাপারে মধুখালি থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে এবং দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। গ্রেফতারকৃতদের বৃহস্পতিবার ফরিদপুর বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

বিডি-প্রতিনিধি/ সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর