২৫ নভেম্বর, ২০২১ ১৫:৫৫

সাতক্ষীরায় নৌকার নির্বাচনী অফিসে আগুন

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

সাতক্ষীরায় নৌকার নির্বাচনী অফিসে আগুন

সাতক্ষীরার তৃতীয় ধাপের ২৮ নভেম্বর ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র্র করে কালিগঞ্জ উপজেলার নলতায় নৌকার নির্বাচনী অফিসে দুুবৃত্তরা আগুন সংযোগ করেছে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে নলতা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম পাইকাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। সেখানে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিতে অগ্নিসসংযোগ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন নলতা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী আবুল হোসেন পাড়।

তবে প্রতিপক্ষ প্রার্থী ও তার কর্মী সমর্থকদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসাতে নির্বানী কৌশল হিসাবে পরিকল্পিত ভাবে ন্যাক্কারজনক এ ঘটনা ঘটনানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপি স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান। তবে প্রকৃত ঘটনা কি সে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ প্রশাসন।

কালিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গোলাম মোস্তফা সাংবাদিকদের জানান, নলতা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম পাইকাড়ায় নৌকার নির্বাচনী অফিসে গবীর রাতে কে বা কারা অগ্নিসংযোগ করে। বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিতে আগুন লাগার ঘটনা শুনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। প্রকৃৃত ঘটনা খতিয়ে  দেখা হচ্ছে। মামলা হলে তদন্ত করে আইননানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী আবুল হোসেন পাড় জানান, বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র চশমা প্রতিকের প্রার্থী আজিজুর রহমান বিএনপি-জামায়াতের মামলার আসামিদের জামিনে এলাকায় এনে নৌকার কর্মীদের ভয় ভীতি ও হুমকি প্রদান করে আসছেন। গত বুধবার বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসীরা আওয়ামী লীগ কর্মী রশিদ, জয়নাল আনসার আলি ও মিজানুরকে নৌকার পেছনে না ছুটে লাভ হবে  না বলে হুঁশিয়ারী দেন। বিষয়টি আনসার আলি সরদার থানায় মৌখিকভাবে বিষয়টি জানান। ঘটনার রাতেই নৌকার নির্বাচনী অফিসে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিতে আগুন লাগার ঘটনা ঘটলো। এ ঘটনায় মামলা করা হবে বলে জানান তিনি।  

এদিকে নলতা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমান বলেন, চশমা প্রতিকের আমার কর্মী সমর্থক এবং বিভিন্ন ওয়ার্ডের ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্য নির্বাচনের শুরু থেকে ভয়ভীতি দিয়ে আসছে নৌকার প্রার্থীর দলীয় লোক জন। শেষ মুুহুর্তে নির্বাচনে নেতাকর্মীদের হয়রানির একটি কৌশল হিসেবে পরিকল্পিতভাবে এই জঘন্য কাজটি করেছে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবুল হোসেনের লোকজন। ওই অফিসে কোন বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ছিল না। তারা পরিকল্পিতভাবে নিজেরাই আগুন দিয়ে ও কিছু পোষ্টার লিফলেট পুড়িয়ে বেঞ্চের ওপর বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি রেখে প্রচার করছে নৌকার অফিসে আগুন দেওয়া হয়েছে। যারা অন্যকে ফাঁসাতে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবিতে আগুন দেয় তারা বঙ্গবন্ধুুর আদর্শের মানুষ হতে পারে না। প্রকৃত ঘটনার তদন্তের জন্য ঘৃণিত এই কাজে জড়িতদের শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। 

বিডি প্রতিদিন/এএ

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর