২০ মে, ২০২২ ২৩:১০

ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

নড়াইল প্রতিনিধি

ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমানের বিরুদ্ধে ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগে মামলা হয়েছে। একই সাথে খাদ্যগুদামের প্রাক্তন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. কামরান হোসেন এবং চাল ব্যবসায়ী মো. শাহাবুর রহমানের বিরুদ্ধেও মামলা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) যশোরের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. মোশাররফ হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। তিনিই মামলাটি তদন্ত করবেন বলে জানিয়েছেন।

মামলায় অভিযুক্ত মো. কামরান হোসেন বর্তমান ঝিনাইদহ খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বরত আছেন এবং আসামি চাল ব্যবসায়ী মো. শাহাবুর রহমান কাশিপুর ইউনিয়নের শারুলিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৯-২০ অর্থবছরে ঈদুল আজহা উপলক্ষে দুস্থ মানুষের জন্য ভিজিএফ কর্মসূচির আওতায় জনপ্রতি ১৫ কেজি করে চাল বরাদ্দ হয়। সে হিসেবে কাশিপুর ইউপিতে ৪১ দশমিক ৫৫০ টন বরাদ্দ দেওয়া হয়। কাশিপুর ইউপি চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান ২০১৯ সালের ৮ আগস্ট ২৪ মেট্টিক টন চাল বরাদ্দ গ্রহণ করেন। ইউনিয়ন পরিষদের গুদামে পর্যাপ্ত জায়গা না থাকার অজুহাতে তিনি ১৭ দশমিক ৫৫০ মেট্টিক টন চাল খাদ্যগুদামে রেখে আসেন। এরপর চাল উত্তোলনের সময়সীমা অতিবাহিত হওয়ার পর খাদ্যগুদামে রাখা চালের মধ্যে ৩ দশমিক ৬ মেট্টিক টন চাল চেয়ারম্যানের সঙ্গে যোগসাজশ করে খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা কামরান হোসেন চাল ব্যবসায়ী মো. শাহাবুর রহমানের কাছে বিক্রি করেন। যার মূল্য ছিল ১ লাখ ৫৬ হাজার ৫৫৩ টাকা। অবৈধ উপায়ে বিক্রি করা চাল খাদ্যগুদাম থেকে নছিমন যোগে জেলা শহর নড়াইলের দিকে নিয়ে যাওয়ার পথে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ সেগুলো আটক করে। তবে বিষয়টি দুদকের শিডিউলভূক্ত হওয়ায় পুলিশ লোহাগড়া থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) অন্তর্ভূক্ত করে তা দুদক কার্যালয়ে পাঠায়।

এ প্রসঙ্গে দুদকের যশোর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো.মোশাররফ হোসেন বাংলাদেশ প্রতিদিনকে মুঠোফোনে বলেন, ‘আসামিরা ফৌজদারি অপরাধ করেছেন এবং ব্যক্তিগত লাভের জন্য একে অপরের সহায়তায় ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন। যেটি প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় দুদকের অনুমোদন সাপেক্ষে ওই মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

এ বিষয়ে মতামত জানতে চাইলে কাশিপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. মতিয়ার রহমান মুঠোফোনে বলেন, ‘খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা কি চাল, কিভাবে বিক্রি করেছেন এটা তাদেরই ব্যাপার। এর সঙ্গে আমি আদৌ সম্পৃক্ত নই। আমার বিরুদ্ধে এটা ষড়যন্ত্র।’

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর