২৮ জুন, ২০২২ ১৯:২৭

ভূরুঙ্গামারীতে যুবককে হত্যার দায়ে গ্রেফতার ৩

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি


ভূরুঙ্গামারীতে যুবককে হত্যার দায়ে গ্রেফতার ৩

প্রতীকী ছবি

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে আলতাফ হোসেন ফিরোজ (১৮) নামে এক যুবককে হত্যার দায়ে তিন আসামীকে গ্রেফতার করেছে কচাকাটা পুলিশ। শনিবার মধ্যরাতে বাড়ি ফেরার পথে রাঙ্গেলীর কুটি গ্রামের নির্জন বাঁশঝাড়ে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আলতাফ হোসেন ফিরোজ উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নের রাঙ্গেলীর কুটি গ্রামের মৃত মল্লুক চানের ছেলে।

গ্রেফতারকৃত দুইজন হলো রৌমারীর একই গ্রামের কোরবান আলীর ছেলে মিলন মিয়া (২০) ও মোস্তফা কামালের ছেলে রুবেল হাসান রানা (১৮)। পরে রবিবার রাতে মমিনুল ইসলাম ঝন্টু (১৬) নামে গ্রেফতারকৃতদের সহযোগীকেও গ্রেফতার করা হয়। এর আগে কচাকাটা থানায় তার স্বজন ৪-৫ জনকে আসামী করে মামলা করলে পুলিশ শনিবার মধ্যরাতে দুইজনকে এবং রবিবার ভোররাতে একজনকে গ্রেফতার করে। পরে মিলন মিয়া ও রুবেল হাসানকে রবিবার আদালতে প্রেরণ করা হয়। পুলিশ জানায়, প্রাথমিক জিঙ্গাসাবাদে মিলন ও রুবেল ফিরোজকে হত্যার দায় স্বীকার করে। এরপর সোমবার মমিনুল ইসলাম ঝন্টুকেও দুপুরে কুড়িগ্রামে আদালতে প্রেরণ করা হয়।

পুলিশ জানায়, আসামী ফিরোজের সাথে একই গ্রামের স্কুল পড়ুয়া এক মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। স্কুলে যাওয়া আসার পথে মেয়েটিকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করে আসছিল ফিরোজ। মেয়েটির পক্ষ থেকে তাকে একাধিকবার নিষেধ করা সত্বেও বারবার বিরক্ত করে আসছিল সে। একারণে ফিরোজকে ধমক দিয়ে ঠিক করতে দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে বাঁশ ঝাড়ে অপেক্ষারত কয়েকজন মিলে তাকে আঘাত করে। মিলনের প্রেমিকাকে বিরক্ত না করার জন্য ফিরোজকে শাসানো ছিল তাদের উদ্যেশ্য।

শনিবার মধ্যরাতে ফিরোজ দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফেরার পথে মোটরসাইকেল যোগে ওই বাঁশঝাড়ে এলে রুবেল হাসান তার গতি রোধ করে। এসময় মিলনসহ অন্যান্যরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপুরি দেহে ও মাথায় আঘাত করলে সে গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। এরপর প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে বাড়িতে নেয়ার পথে তার মৃত্যু ঘটে। এরপর কচাকাটা থানা পুলিশ ওই রাতেই নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে এবং রবিবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে প্রেরণ করে।

এ ব্যাপারে কচাকাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহেদুল ইসলাম জানান, ফিরোজ হত্যার প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বিডি প্রতিদিন/এএ

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর