২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০২:০১

দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন মহারাজ

পিরোজপুর প্রতিনিধি

দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন মহারাজ

পিরোজপুরে জেলা পরিষদের নির্বাচনে দলীয় সভানেত্রীর সিদ্ধান্ত মেনে চেয়ারম্যান পদ থেকে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন মহারাজ।

শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। তবে আজ রবিবার জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেবেন মহিউদ্দিন মহারাজ।

মহিউদ্দিন মহারাজ পিরোজপুর জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও প্রশাসক। পিরোজপুর জেলা পরিষদে এবার আওয়ামী লীগের দলীয় সমর্থন দেওয়া হয়েছে সালমা রহমান হ্যাপীকে।

সালমা রহমান হ্যাপী শহীদ ওমর ফারুকের বোন ও পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য। মহিউদ্দিন মহারাজ দলীয় সমর্থন না পেয়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছিলে। এরপর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক এমপির একেএমএ আউয়ালের উদ্দ্যোগে শনিবার সন্ধ্যায় এক বৈঠকে  দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেন মহিউদ্দিন মহারাজ।

সভায় উপস্থিত থাকাদের মাধ্যমে এ সিদ্ধান্ত নিশ্চিত হওয়া গেছে। এর ফলে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী সালমা রহমানের নির্বাচিত হওয়ার বিষয়টি অনেকটাই নিশ্চিত।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, রবিবার জেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময়। এদিন বেলা ১২টায় পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে দলটি। সেখানে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মহিউদ্দিন মহারাজ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেবেন।

পিরোজপুরে জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছিলেন ৫ জন। এরমধ্যে একজন বাছাইয়ের সময় বাদ পরে। বাকী ৪ জন হলেন- সালমা রহমান হ্যাপী,  মহিউদ্দিন মহারাজ, হাসিনা মনি ও আবদুল্লাহ আল মাসুদ। এদের মধ্যে দুজনকে ডামি প্রার্থী হিসেবে মনে করা হয়।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত

সর্বশেষ খবর