৬ অক্টোবর, ২০২২ ১৯:০৬

নালিতাবাড়ীতে সড়কের পাশে গাছের চারা রোপণ

নালিতাবাড়ী প্রতিনিধি

নালিতাবাড়ীতে সড়কের পাশে গাছের চারা রোপণ

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে নিচপাড়া এলাকায় সড়কের পাশে সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য লাগানো হচ্ছে ৬৬ প্রজাতির প্রায় তিন হাজার বাহারি ফুলের গাছ। বৃহস্পতিবার বিকালে ইউএনও  হেলেনা পারভীন ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোকছেদুর রহমান লেবু ফুল গাছের চারা রোপন করে উদ্বোধন করেন।

জানা গেছে, নালিতাবাড়ী ইউনিয়নের নিচপাড়া ভোগাইনদীর পাড়ে গত বছর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে একশকত প্রজাতির গাছ লাগিয়ে বঙ্গবন্ধু পার্ক করা হয়। এ বছর ওই পার্কটি চারদিকে নেটের বেড়া দিয়ে আরসিসি পিলারে লাইটিং করে সেখানে ফাকা যায়গায় লোহার ছাতা দিয়ে পাকা করে বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়া পার্কের পাশ দিয়ে সরকারী অরক্ষিত আরেকটি রাস্তা বের করে মাটি কেটে কাকরকান্দী সড়কের সাথে সংযোগ করা হয়েছে। মাঝে একটা খাল রয়েছে। যা কিছুদিন আগে বিএডিসির মাধ্যমে খনন করা হয়েছে এবং খালের দুপাড়ে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ লাগানো হয়েছে। এখন এই রাস্তার দুপাশে বাহারি ফুলের গাছ লাগানো হচ্ছে। রাতের মনোরম পরিবেশের জন্য সোলারের মাধ্যমে আলোর ব্যাবস্থা করা হয়েছে। আর গাছ গুলো রক্ষনাবেক্ষনের জন্য তিনজন মহিলা রাখা হয়েছে। এ সময় নালিতাবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ ও ইউপি সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখযোগ্য ফুল গাছগুলো হলো সিজিয়াম, বোতল ব্রাশ, চায়না তালপাম, মৌচান্দা, ফক্সটেইল পাম, টগর, রেড পাম, সাইকাস, ফনিক্স পাল, চেঞ্জার পাতাবাহার, রাবার পাতা, টাইগার পাতা, পান্থপথ, ডেসিনা, বেলা, মাধবিলতা, জুই, এরিকা পাম, রংগন, হাসনাহেনা, নীল অপরাজিতা, রেডলিপ, কম্পোস্ট ঝাউ, ডুয়াফ বাঁশ, পবন ঝাউ, কৃষ্ণচ‚ড়া, গন্ধরাজ, জবা, আগর, টগর, করবী, পানচাটিয়া, এরোলিয়া, ঝুড়িপাতা, কামিনী,সাদা জবা, লাল জবা, ভেরিভেরি পাতা, পেন্টাস, টিকমালতা, হলুদ এলামন্ডা, বেগুনি শাওয়ার, বাগান বিলাস, ক্রিম মাল, লোচান্ডা লাল, লোচান্ডা অফ হোয়াইট, লোচান্ডা গোলাপী, হাসনা হেনা, ক্রিসমাস ইত্যাদি।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোকছেদুর রহমান লেবু বলেন, মনোরম এবং সুন্দর পরিবেশ করার  জন্য বগুড়া থেকে এই ফুলের চারা গুলো আনা হয়েছে। এলাকাটিতে পার্ক,নদী, রাস্তা ও খাল হওয়ায় এই অরক্ষিত যায়গাকে সুন্দর একটা পরিবেশ করছি, মানুষ পরিবার নিয়ে  যেন এখানে ঘুরতে আসে। আর পার্কের ভিতরে ঘর করে একটা পাঠাগার করার চিন্তা আছে।

বিডি প্রতিদিন/এএ

সর্বশেষ খবর