২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ১৯:৪২

পুলিশ সদস্য সাদ্দাম হোসেন হত্যার রহস্য উদঘাটন

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

পুলিশ সদস্য সাদ্দাম হোসেন হত্যার রহস্য উদঘাটন

গ্রেফতার প্রধান দুই আসামি

ময়মনসিংহে পুলিশ কনস্টেবল সাদ্দাম হোসেন হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। এ ঘটনার প্রধান দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশ। গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন-নিহতের বড় ভাই হাবিবুল করিম তপু (৪০) ও আনোয়ারুল ইসলাম আনোয়ার (৩৩)।

সোমবার ভোরে ঢাকা ও মুক্তাগাছা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। পরে  দুপুরে কোতোয়ালী মডেল থানায় সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শাহীনুল ইসলাম ফকির।

তিনি জানান, সাদ্দাম হোসেন পুলিশ কনস্টেবল হিসেবে কর্মরত ছিল। সে একজন মাদকাসক্ত ও বিপথগামী পুলিশ সদস্য ছিল এবং প্রায় দিনই সে কর্মক্ষেত্রে অনুপস্থিত থাকত। যার ফলে একাধিকবার সে পুলিশের লঘু ও গুরুদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন। সম্প্রতি সে ছুটিতে এসে মাদকের টাকার জন্য বাবা-মা ও পরিবারের সদস্যদের লাঞ্ছিত করে। খবর পেয়ে শনিবার বড় ভাই হাবিবুল করিম তপু তার বন্ধু আনোয়ারুল ইসলামকে দিয়ে কৌশলে সাদ্দামকে সদর উপজেলার একটি মেহগনি বাগানে ডেকে আনে।

পরে সাদ্দাম কেন বাবা-মাকে লাঞ্ছিত করে এবং চাকরিতে কেন যায় না, এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সাদ্দামকে গলায় দড়ি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরদিন বিকালে ওই মেহগনি বাগানে পাতা কুড়াতে গিয়ে মরদেহটি দেখতে পায় এক নারী। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।

ঘটনার পরদিন নিহত পুলিশ কনস্টেবলের স্ত্রী সুমাইয়া আক্তার বাদী হয়ে কোতোয়ালী মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ হত্যার ঘটনায় সহোদর ভাইসহ দুইজনকে গ্রেফতার করে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর