শিরোনাম
২২ জানুয়ারি, ২০২৩ ১৭:৪৮

বাজুস’র অগ্রযাত্রায় সকলকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে : সায়েম সোবহান আনভীর

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাজুস’র অগ্রযাত্রায় সকলকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে : সায়েম সোবহান আনভীর

নগরের কোতোয়ালী থানাধীন কোর্ট হিল আসফী রঙ্গম টাওয়ারেবাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাজুস) চট্টগ্রাম বিভাগীয় অফিস উদ্বোধন করা হয়েছে।  

রবিবার দুপুরে ভার্চুয়ালি নবনির্মিত অফিসের উদ্বোধন করেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বাজুস’র প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীর।
 
এসময় তিনি বলেন, বাজুসে যারা আছি, আমরা সবাই একটি পরিবার। আমরা সকলে মিলেমিশে এ শিল্পকে এগিয়ে নিয়ে যাবো। আমাদের এই অগ্রযাত্রা সামনের দিকে এগিয়ে নিতে সকলকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। এসময় তিনি বাজুসের অগ্রযাত্রার ভবিষ্যৎ সফলতা কামনা করেন।  

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাজুস চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি মৃণাল কান্তি ধর, সহ সভাপতি সুধীর রঞ্জন বণিক, সিদুল কান্তি ধর, দিলীপ কুমার ধর, হারাধন মহাজন, বিপ্লব বসাক, লিটন কান্তি ধর, যীশু বণিক, সাধারণ সম্পাদক প্রণব সাহা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুস্তাফিজুর রহমান, অ্যাডভোকেট অমল কৃষ্ণ ধর, সহ সম্পাদক কাজল বণিক, প্রদীপ গুহ, অমিত ধর, হিরন্ময় ধর, সুকুমার দে, মো. শাহজাহান সিদ্দিকী, খোকন ধর, হাজী মোহাম্মদ নুরুল হক, সুজিত কুমার ধর, কোষাধ্যক্ষ প্রতাপ ধর, কার্যকরী সদস্য মিননাথ ধর, গোপীনাথ ধর, রুবেল কান্তি ধর, তপন কান্তি ধর, স্বপন চৌধুরী, রণি বণিক, মিন্টু ধর, শম্ভু ধর, রাজীব ধর তমাল, বরুণ হাজারী, বিপ্লব কান্তি ধর, স্বপন কুমার ধর, নুরুল আবছার চৌধুরী, রুপন কান্তি ধর, শান্তুনু বণিক ও দিলীপ কুমার বণিক প্রমুখ।

এদিকে, অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্ব নগরের এস এস খালেদ সড়কের রীমা কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়। বাজুস চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি মৃণাল কান্তি ধরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন ও গীতা পাঠ করা হয়। এরপর সমিতির প্রয়াত সদস্যদের স্মরণে শোক প্রস্তাব পাঠ করেন বাজুস চট্টগ্রাম বিভাগের কার্যকরী সদস্য শম্ভু ধর ও বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ করেন সাধারণ সম্পাদক প্রণব সাহা। এসময় বক্তব্য দেন বাজুস চট্টগ্রাম বিভাগের সিনিয়র সহ সভাপতি সুধীর রঞ্জন বণিক, সাবেক সভাপতি লিটন কান্তি ধর, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুরেশ চন্দন ধর, সুদীপ কর্মকার, মো. আলমগীর।  

বাজুস চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি মৃণাল কান্তি ধর বলেন, বর্তমান বাজুস সু-সংগঠিত হওয়ার পেছনে যিনি মুখ্য ভূমিকায় আছেন, তিনি দেশের শীর্ষ শিল্প উদ্যোক্তা বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বাজুস প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীর। তার অনুপ্রেরণায় ও নেতৃত্বে বর্তমান বাজুস পূর্বের চেয়ে অনেক বেশি গতিশীল। স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও সাংগঠনিক নিয়মে বাজুস পরিচালিত হচ্ছে। জুয়েলার্স ব্যবসায়ী সমাজসহ প্রশাসনের সর্বোচ্চ পর্যায়ের সহযোগিতা নিয়ে বাজুস চট্টগ্রাম শাখাকে তার ঐতিহ্যগত সুনাম ফিরিয়ে আনতে গিয়ে অনেক সময় কঠিন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হয়েছে। আমরা কেবিনেট গঠন করার পর আজ পর্যন্ত কোনও ব্যবসায়ী ভাই পুলিশী হয়রানির শিকার হয়নি। কোনও ব্যবসায়ী পুলিশী হয়রানির শিকার হয়েছে-এটা শোনার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাৎক্ষণিক সমাধান করেছেন।  

বাজুস চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাধারণ সম্পাদক প্রণব সাহা বলেন, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, পরিবারতন্ত্র, সাম্প্রদায়িকতা ও আর্থিক অনিয়মের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করে আমার সামনে উপস্থিত সকল ব্যবসায়ীর আন্তরিক সহযোগীতায় বর্তমান কার্যকরী পরিষদ গঠন করেছি। এই পরিষদ সর্বকালের একটা সেরা পরিষদ হিসেবে ব্যবসায়ীদের কাছে পরিচিতি পাবে। বর্তমান কার্যকরী পরিষদ দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে সংগঠনের কার্যক্রম প্রসারিত করে সবাইকে একই ছাতার নিচে নিয়ে এসেছে।  

বক্তারা বলেন, বাজুসের সম্মানিত প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীর সাহেবের নেতৃত্বে সারাদেশে স্বর্ণ ব্যবসয়ীরা এখন নতুন করে জেগে উঠেছে। সারাদেশের বাজুস এখন একটি মডেল ব্যবসায়িক সংগঠনে পরিণত হয়েছে। সায়েম সোবহান আনভীর সাহেবের নেতৃত্বে আছেন বলেই বাজুস আজ এত টাকা খরচ করে নতুন অফিস করার পরিকল্পনা গ্রহণের সাহস পেয়েছে। একসময় স্বর্ণ ব্যবসায়ীরা নানাভাবে হয়রানির শিকার হতো। কিন্তু বাজুস প্রেসিডেন্ট সায়েম সোবহান আনভীর, চট্টগ্রামের সভাপতি মৃনাল কান্তি ধর ও সাধারণ সম্পাদক প্রণব সাহা নেতৃত্বে আসার পর থেকে এখন পর্যন্ত কোনও ব্যবসায়ীকে কারাগারে যেতে হয়নি। কোনও ধরনের হয়রানির শিকার হতে হয়নি।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর