শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৯ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ মার্চ, ২০২১ ২৩:০৬

হাসপাতালে আগুন

রোগীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবনের দ্বিতীয় তলার করোনা ইউনিটের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) বুধবার সকালে আগুন লেগে তিন রোগীর মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটেছে। সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে হাসপাতাল পরিচালকের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, অগ্নিদগ্ধ হয়ে নয়, আইসিইউ থেকে স্থানান্তরের সময় তারা মারা গেছেন। তবে সংশ্লিষ্ট রোগীর স্বজনদের অভিযোগ, ধোঁয়ায় দম বন্ধ হয়ে তাদের মৃত্যু হয়েছে। প্রাথমিকভাবে পাওয়া তথ্যানুযায়ী আইসিইউতে ১২ নম্বর বেডে চিকিৎসাধীন একজন রোগীর স্বজন পানি গরম করার সময় শর্টসার্কিটে স্পার্ক করলে আতঙ্কিত হয়ে যেনতেনভাবে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। আর তাতে পানির পাত্রে আঘাত লেগে আগুনের বিস্তৃতি ঘটায়। মুহূর্তে পুরো আইসিইউ ধোঁয়ায় অন্ধকার হয়ে যায়। আতঙ্কিত হয়ে রোগীর স্বজনরা দিগ্বিদিক ছোটাছুটি করতে থাকেন। ওয়ার্ডবয় ও কর্তব্যরত নার্সেরা যে যেভাবে পারেন রোগীদের নিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। ধোঁয়া থেকে বাঁচতে তারা দুই দিকের জানালার কাচ ভেঙে ফেলেন। একজন ছাড়া সব রোগীকে তারা বের করতে সক্ষম হন। পরে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা এসে আটকেপড়া একজনকে উদ্ধার করেন। ঘটনার সময় সেখানে তিনজন চিকিৎসক, আটজন নার্স ও চারজন ওয়ার্ডবয় দায়িত্বে ছিলেন। আইসিইউর ৯ নম্বর বেডে ভর্তি ছিলেন যে রোগী, আগুনের ঘটনায় তাকে অন্য আইসিইউতে স্থানান্তরের সময় মৃত্যু হয়। তার স্বজনদের অভিযোগ, তিনি মারা গেছেন ধোঁয়ায় দম বন্ধ হয়ে। অন্য দুজনও মারা গেছেন আইসিইউ থেকে অপসারণের সময়। উল্লেখ্য, গত বছরের ২৭ মে রাজধানীর গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুন লেগে পাঁচজন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়। তদন্ত প্রতিবেদনে অগ্নিকান্ড ও অগ্নিনির্বাপণে হাসপাতাল কর্মীদের গাফিলতির তথ্য উঠে আসে। আমরা আশা করব এ ধরনের দুর্ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে ঘটনার যথাযথ তদন্ত শুধু নয়, রোগীদের নিরাপত্তাও নিশ্চিত করা হবে।