শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৬ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ মে, ২০১৯ ২৩:৩৬

মিলা-পারভেজ ইস্যুর সমাধান কোথায়?

পান্থ আফজাল

মিলা-পারভেজ ইস্যুর সমাধান কোথায়?

সংগীত তারকা মিলা ইসলাম সাবেক স্বামী বৈমানিক পারভেজ সানজারি ও শ্বশুরবাড়ির অমানুষিক নির্যাতনের বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলনসহ বেশ কয়েকবার তার ফেসবুক টাইমলাইন ও পেজে পোস্টও দিয়েছেন। তবে মিলার সাবেক স্বামীও একইভাবে মিলার সব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন। মিলা ইস্যুতে মাঝে জড়িয়ে যায় নওশীন, তিন্নি ও হিল্লোল। তারাও একে-অপরের দিকে ছোড়া সব অভিযোগের মোক্ষম জবাবও দেন। গত শনিবার মিলা নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে সাবেক স্বামীকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন।

 

আমার বিরুদ্ধে করা তার অভিযোগ আসলে কোনোটিই সত্যি নয় : পারভেজ সানজারি

একটি যৌথ পরিবারের ঘরের বউ কখনোই তার কাজের বুয়া-দারোয়ানকে দিয়ে সিগারেট আনানো, অশালীন কাপড়ে মুরব্বি-মেহমানদের সামনে যাওয়া, তুচ্ছ কথায় বাড়িতে ভাঙচুর করা ও প্রতিবেশীদের অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে ফেলা মেনে নেওয়া যায় না। তার প্রতিটি পদক্ষেপ ছিল আমার চিরায়ত মূল্যবোধের বিরুদ্ধে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপ্রাসঙ্গিক বিষয়গুলো জনসমক্ষে এনে আমাকে হেয়-প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।  সে হাস্যকরভাবে আমার সঙ্গে সংসার করতে চাইছে। কিছু কল্পনাপ্রসূত বানোয়াট উপাত্ত দেখিয়ে আমার বিরুদ্ধে করা তার অভিযোগ আসলে কোনোটিই সত্যি নয়।

 

নিজের জীবনের ওপর হুমকি আছে : মিলা

একজন ব্যক্তি যখন নিজেকে আইনের ঊর্ধ্বে ভেবে সীমাহীন বেপরোয়া হয়ে ওঠে, যখন তাকেই অনৈতিকভাবে আশকারা দিতে থাকে কিছু মহল, তখন নিশ্চয়ই বিবেকবান যে কেউ প্রতিবাদী হবেই। সানজারি বিয়ের পর থেকেই কেমন যেন অচেনা আচরণ করতে থাকে। সে মিডিয়ার অনেক অভিনেত্রী ও কণ্ঠশিল্পীকেও মিথ্যে প্রেমের ফাঁদে ফেলে নষ্ট করেছে এবং এখনো করছে। আবার এমন কিছু বিতর্কিত অভিনেত্রীও আছে, যারা টাকা কিংবা অন্য কিছুর লোভে তার সঙ্গে সম্পর্ক গড়েছে, দৈহিক মেলামেশাও করেছে এবং এখনো করছে। তার সব অপকর্ম, এমনকি দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকিস্বরূপ নানা কার্যকলাপ ফাঁস হয়ে যাওয়ার ভয়ে সে আমার সম্পর্কে নানা বানোয়াট কথাবার্তা বলে মিডিয়াকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা করছে। আমার নিজের জীবনের ওপরও হুমকি আছে। সানজারি নিজেই মোবাইল ফোনে খুদে বার্তা পাঠিয়ে আমাকে হুশিয়ার করেছে যে, তার নিজের অস্ত্র দিয়ে যখন তখন আমাকে হত্যা করবে। কথাটা সে আমার সাবেক সেনা অফিসার বাবাকেও জানাতে দ্বিধা করেনি। সিদ্ধান্ত নিয়েছি, অন্যায় হুমকির কাছে মাথা নত করব না।


আপনার মন্তব্য