শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ এপ্রিল, ২০২১ ২১:৫৫

সাউথ ইন্ডিয়ান জনপ্রিয় কিছু ছবি

শোবিজ ডেস্ক

সাউথ ইন্ডিয়ান জনপ্রিয় কিছু ছবি

ওটিটি প্ল্যাটফরমগুলো দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। এসব প্ল্যাটফরমে ক্রমশ জনপ্রিয় হচ্ছে সাউথ ইন্ডিয়ান ফিল্ম। মূলত দক্ষিণ ভারতের চারটি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে এই সাউথ ইন্ডিয়ান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি গঠিত। তামিল (কলিউড), তেলেগু (টলিউড), মালায়ালাম (মলিউড) এবং কন্নড় (স্যান্ডলউড)। এদের মধ্যে সবচেয়ে বড় ইন্ডাস্ট্রি হলো তামিল। দুর্দান্ত সব থ্রিলার সিনেমা তৈরিতে তামিল ইন্ডাস্ট্রির জুড়ি মেলা ভার। আজ তেমনই তামিলের কিছু দুর্দান্ত থ্রিলার  সিনেমার সঙ্গে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেব।

 

ইরাভক্কু আইইরাম কাঙ্গল

এক বৃষ্টিমুখর রাতে নির্জন শহরের কোনো একটা বাড়িতে এক তরুণীর লাশ পড়ে আছে। সেই রাতে বাড়িটিতে ওই তরুণীকে খুন করতে একের পর এক মানুষ আসে। কিন্তু বাসায় যিনিই প্রবেশ করেন, তিনিই অবাক হয়ে যান। কারণ তার আগেই অন্য কেউ একজন এসে তরুণীকে খুন করে পালিয়ে  গেছে। সব প্রশ্নের উত্তর মিলবে এই সিনেমাটিতে। সিনেমার শেষভাগে আপনার জন্য আরেকটি বড় টুইস্ট অপেক্ষা করছে। শেষ হইয়াও যেন হইল না শেষ!

 

থাডাম

এঢ়িল ও কাভিন দুজন দেখতে একই রকম। কিন্তু দুজনের চরিত্রে আকাশ-পাতাল ব্যবধান। এদের মধ্যে এঢ়িল একজন ইঞ্জিনিয়ার এবং তার কনস্ট্রাকশন কোম্পানি আছে। তার জীবনযাপন অনেক বেশি ডিসেন্ট। মেয়েদের সঙ্গে কথা বলতেও ভয় পায় এঢ়িল। অন্যদিকে কাভিন একটু ভবঘুরে টাইপের, অনেক বেশি চালাক। ধান্দাবাজি করে মানুষের টাকা হাতিয়ে নেয় কাভিন। জুয়া খেলা এবং অনেক মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক করাই তার কাজ। এভাবে এগিয়ে যায় সিনেমার গল্প। এই সিনেমাটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত।

 

ইমিক্কা নডিগাল

একটি কিডন্যাপের দৃশ্য দিয়ে সিনেমার শুরু। প্রথম ৫ মিনিটের মাথায় কিডন্যাপারকেও দেখানো হয়। কী ভাবছেন? সিনেমা শেষ! এমন যদি চিন্তা করে থাকেন, তাহলে আপনার চিন্তাকে ১৮০ ডিগ্রি পাল্টে দেবে এই সিনেমাটি। সিনেমার গল্পে আসি। শহরে হঠাৎ এক সাইকোপ্যাথের আবির্ভাব ঘটে। যে কি না কিডন্যাপের পর টাকা দাবি করে। কিন্তু টাকা দেওয়ার পরও সে নৃশংসভাবে খুন করে। এই সিনেমার পুরো সময় পুলিশের সঙ্গে ইঁদুর-বিড়াল খেলা। এক বসাতেই শেষ করার মতো দারুণ থ্রিলার। আশা করি উপভোগ করবেন বেশ।

 

রাতশ্মশান

 সিনেমার শুরুতেই অরুণ কুমার নামের একজন তরুণকে দেখা যায়, যার স্বপ্ন সাইকোপ্যাথ নিয়ে সিনেমা নির্মাণ করবেন। কিন্তু স্ক্রিপ্ট নিয়ে অনেক প্রযোজক-পরিচালকের কাছে গেলেও, কোথাও সাড়া মেলেনি সেভাবে। নিজের স্বপ্নকে বিসর্জন দিয়ে অনেকটা বাধ্য হয়ে পুলিশে জয়েন করেন অরুণ। ঠিক সেই সময় শহরে একের পর এক স্কুলছাত্রীর নৃশংস মরদেহ উদ্ধার হতে থাকে। মরদেহের পাশে আবার একটি করে গিফট বক্স পাওয়া যায়। রক্ত হিম করা টান টান উত্তেজনার এই থ্রিলার সিনেমাটি আপনাদের হৃদযন্ত্রের বড় পরীক্ষা নেবে।

 

ধুরুবঙ্গল পাথিনারু

দীপক একজন অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ অফিসার। অবসরের পর নতুন বাসার কাজে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন। হঠাৎ এক দিন তার ফোনে পরিচিত একজনের নম্বর থেকে কল আসে, যার ছেলে পুলিশ অফিসার হতে চায়। কিন্তু ছেলেকে পুলিশ অফিসার বানাতে রাজি নন তিনি। তাই ছেলেকে পাঠাতে চান দীপকের কাছে, যাতে দীপক উনার ছেলেকে  বোঝাতে পারেন পুলিশের চাকরিতে জীবন কতটা ঝুঁকি রয়েছে। তার চেয়েও বড় চমক অপেক্ষা করছে সিনেমার শেষ ভাগে। দুর্দান্ত এই থ্রিলার সিনেমাটি আগে না দেখে থাকলে অবশ্যই দেখে নিতে পারেন।

 

ইন্ডিয়ান ২

‘২.০’ খ্যাত পরিচালক এস শঙ্কর ২০১৯ সালে নিয়ে আসেন বড় বাজেটের ছবি ‘ইন্ডিয়ান ২’। এ ছবিতে দেখা যায় কমল হাসান, অক্ষয় কুমার, অজয় দেবগন ও কাজল আগারওয়ালের মতো তারকাদের। ওই সময় গুঞ্জন ওঠে, এটি কমল হাসানের শেষ ছবি। এরপর তিনি চলচ্চিত্র ছেড়ে পুরোদ্দমে রাজনীতির মাঠে নামবেন। সিনেমাপ্রেমিক মানুষগুলো এ ছবিটির বেশ প্রশংসা করেছেন।

আর এ কারণে ওই বছর সবচেয়ে আলোচিত ছবি হওয়ার  দৌড়ে অনেকটাই এগিয়ে ছিল এ ছবিটি।

 

বিগিল

আপনি যদি ফেসবুকে সিনেমার গ্রুপগুলোতে যুক্ত থাকেন, তাহলে এই সিনেমার নাম এতদিনে অবশ্যই অনেকবার শুনে ফেলেছেন। ১৯৯১ সালের ব্লকবাস্টার ছবি ‘বিগিল’র আদলে নির্মিত হচ্ছে ‘বিগিল’। এ ছবির মূল ভূমিকায় অভিনয় করেছেন অভিনেতা জোসেফ বিজয়। ছবির সংগীতায়োজন করেছেন অস্কার বিজয়ী সংগীত পরিচালক এ আর রহমান। গল্প আর কাহিনির দৌড়ে এ ছবিটি এখনো মুভি লাভারদের পছন্দের তালিকায় আছে। এটিও ২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে অবমুক্ত করা হয়।