শিরোনাম
২৮ এপ্রিল, ২০২৩ ০৮:০৯

সামান্থাকে জবাব দিতে গিয়ে বেফাঁস মন্তব্য দক্ষিণী প্রযোজকের

অনলাইন ডেস্ক

সামান্থাকে জবাব দিতে গিয়ে বেফাঁস মন্তব্য দক্ষিণী প্রযোজকের

সামান্থা (বামে) ও চিট্টিবাবু। সংগৃহীত ছবি

ভারতীয় দক্ষিণী সিনেমার জগতে এখন শিরোনামে অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু ও প্রযোজক চিট্টিবাবুর ঝগড়া। একজন বলেন আমায় দেখ, তো অন্যজন বলেন আমায়। বলা যায়, সেয়ানে সেয়ানে লড়াই বেশ জমে উঠেছে। সপ্তাহ দু’য়েক আগে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে সামান্থা রুথ প্রভু অভিনীত ‘শকুলন্তম’। বেশ দামি বাজেটের ছবি হলেও বক্স অফিসে ব্যবসা তুলতে ব্যর্থ হয়েছে সামান্থার এই সিনেমা। শুধু ব্যর্থই হয়নি, বক্স অফিসে প্রায় মুখ থুবড়ে পড়েছে ছবিটি। মুক্তির প্রথম সপ্তাহান্তে বক্স অফিসে ১০ কোটি রুপিও উপার্জন করতে পারেনি ছবি। ‘শকুন্তলম’ ব্যবসায়িকভাবে ব্যর্থ হওয়ার পরই সামান্থার দিকে ধেয়ে এসেছে সমালোচনার ঝড়। অভিনেত্রীর কর্মজীবন নাকি একেবারে শেষ হওয়ার মুখে, সপ্তাহ খানেক আগেই এমন মন্তব্য করেন দক্ষিণী প্রযোজক-পরিচালক চিট্টিবাবু।

চিট্টিবাবুর নাম উল্লেখ না করলেও সামাজি যোগাযোমাধ্যমে ইঙ্গিতবাহী পোস্ট করে তাকে জবাবও দেন সামান্থা। তবে চিট্টিবাবুর নাম না নিলেও সামান্থার পোস্ট যে তাকে উদ্দেশ্য করেই, তা বুঝতে পেরে এবার উত্তর দিলেন দক্ষিণী প্রযোজক-পরিচালক। চিট্টিবাবুর সেই উত্তর ঘিরেই এখন চর্চা তুঙ্গে।

কয়েক দিন আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের পাতায় গুগলের একটি স্ক্রিনশট পোস্ট করেছেন সামান্থা। গুগলকে সামান্থা প্রশ্ন করেছিলেন, “কারও কানে এত চুল কী কারণে গজায়?”

গুগলের উত্তর, “টেস্টোস্টেরনের মাত্রা বৃদ্ধি পেলে কানের ভিতরে ও বাইরে চুল গজায়।”

দক্ষিণী প্রযোজক-পরিচালক চিট্টিবাবুর ছবি দেখলেই বোঝা যায়, তার মাথায় চুল না থাকলেও, দুই কানে চুলের কমতি নেই। তা থেকেই অনুরাগীদের ধারণা, নাম উল্লেখ না করলেও চিট্টিবাবুকে নিশানা করেই কটাক্ষ করেছেন সামান্থা। এবার সামান্থার এই ইঙ্গিতবাহী পোস্টের জবাব দিলেন চিট্টিবাবু। 

এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “তিনি শুধু আমার কানের চুল দেখেছেন, আমার শরীরের অন্য জায়গাতেও চুল গজায়।”

এখানেই থামেননি তিনি। দক্ষিণী প্রযোজক-পরিচালক আরও বলেন, “সামান্থা এখন আর ১৮-২০ বছরের তরুণী নেই। ও এখন বুড়িয়ে গেছে। ‘শকুন্তলম’-এর চরিত্রের জন্য ওর নির্বাচন একেবারেই ঠিক নয়। আর তাতে ভুল কী আছে! ওর গ্ল্যামারের দিন ফুরিয়ে এসেছে। ওর চেহারা এখন পার্শ্বচরিত্রে করার মতো, আর ওর এই সত্যটা মেনে নেওয়া উচিত।”

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে চিট্টিবাবু বলেন, “সস্তার আবেগ দিয়ে দর্শককে বেশি দিন ভুলিয়ে রাখা যায় না। ‘যশোদা’র প্রচারের পরে ‘শকুন্তলম’-এর প্রচারেও উনি চোখের পানি ফেলছিলেন। ছবি ভাল না হলে চোখের পানি ফেলে কী হবে!”

চিট্টিবাবুর দাবি, “নাগা চৈতন্যের সঙ্গে বিচ্ছেদের পরে জীবনধারণ করার জন্য সামান্থা ‘ও আন্তাভা’ গানে নেচেছিলেন। এখন উনি যা কিছুর প্রস্তাব পাচ্ছেন, তাই-ই করছেন।”

আপাতত বরুণ ধাওয়ানের সঙ্গে ‘সিটাডেল’ ওয়েব সিরিজের শুটিংয়ে ব্যস্ত রয়েছেন দক্ষিণী অভিনেত্রী। সম্প্রতি লন্ডনে ‘সিটাডেল’-এর প্রিমিয়ারে উপস্থিত ছিলেন তিনি।

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর