Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ নভেম্বর, ২০১৬ ২৩:২২

দুদক প্রতিষ্ঠার ১২ বছর

তৃণমূলে ছড়াচ্ছে কার্যক্রম

মোস্তফা কাজল

তৃণমূলে ছড়াচ্ছে কার্যক্রম

দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক প্রতিষ্ঠার ১২ বছর আজ। যুগপূর্তিতে আগামী বছর থেকে দুর্নীতি দমন ও প্রতিরোধে তৃণমূল পর্যন্ত ছড়িয়ে দেওয়া হবে দুদকের কার্যক্রম। ৪২টি জেলায় নতুন অফিস স্থাপন করা হবে। ৫৫৪টি ইউনিয়নের তৃণমূলে গঠন করা হবে দুর্নীতি প্রতিরোধে কমিটি। সরকারি পাঁচ সেবা প্রতিষ্ঠানের জন্য পাঁচজন মহাপরিচালকের নেতৃত্বে বিশেষ দুর্নীতি দমন টিম ইতিমধ্যে গঠিত হয়েছে। দুদকের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর প্রাক্কালে বাংলাদেশ প্রতিদিনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ এসব তথ্য জানান। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে দুদক। আজ সকালে দুদকের সেগুনবাগিচার প্রধান কার্যালয়ে জাতীয় সংগীত পরিবেশন, জাতীয় পতাকা উত্তোলন, মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হবে। পরে দুদকের সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত হবে আলোচনা সভা। এ ছাড়া দুদকের কর্মকতা ও কর্মচারীদের দুর্নীতিবিরোধী শপথ পাঠ করানো হবে। দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, উন্নয়নের প্রধান বাধা দুর্নীতি। দুদক তার যাবতীয় শক্তি দিয়ে দুর্নীতি প্রতিরোধে কাজ করছে। চলমান কমিশন দায়িত্ব নিয়েই বেসিক ব্যাংকের ২ হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা দায়ের, সাবেক প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খান ও এমপি আবদুর রহমান বদিসহ সরকার দলীয় মন্ত্রী-এমপিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। ইকবাল মাহমুদ বলেন, দুদক গুরুত্বপূর্ণ পাঁচটি সরকারি সেবা প্রতিষ্ঠানের দুর্নীতি প্রতিরোধ ও দমনে পাঁচটি প্রাতিষ্ঠানিক দল গঠন করেছে। সংস্থার পাঁচ মহাপরিচালক দলগুলোর নেতৃত্ব দেবেন। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো— রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক), জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ, স্বাস্থ্য অধিদফতর, ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদফতর, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতর। পর্যায়ক্রমে অন্য সরকারি সেবা সংস্থাগুলোর জন্য দুদকের প্রাতিষ্ঠানিক দল গঠিত হবে। দুদক চেয়ারম্যান বলেন, দুদককে আরও গতিশীল করতে নানা পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। দুদকে যেসব কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, তাদের পরিবর্তে বিভিন্ন ক্যাডারের সৎ ও দক্ষ কর্মকর্তাদের প্রেষণে অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। এ লক্ষ্যে এরই মধ্যে সংস্থাটির উপ-পরিচালক পদমর্যাদার ছয় কর্মকর্তাকে সরকারি বিভিন্ন অধিদফতর ও পরিদফতরে প্রেষণে বদলি করা হয়েছে। তিনি বলেন, দুদককে শক্তিশালী করতে একটি সশস্ত্র ইউনিট, নিজস্ব হাজতখানা ও অপরাধী শনাক্তকরণের জন্য মোবাইল ট্র্যাকিং মেশিন সংগ্রহ করা হচ্ছে। এরই মধ্যে সশস্ত্র ইউনিট গঠন ও নিজস্ব হাজতখানা তৈরির অনুমোদন চেয়ে ও মোবাইল ট্র্যাকিং মেশিন, ডিজিটাল ক্যামেরা ও ওয়াকিটকি সংগ্রহে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, আমি দায়িত্ব গ্রহণের পর গত সাড়ে আট মাসে দুর্নীতির মামলায় তিন শতাধিক আসামিকে গ্রেফতার করে আইনের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। সাঁড়াশি অভিযানে আসামিদের অনেকে এরই মধ্যে গা-ঢাকা দিয়েছেন। অনেকে দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন। বর্তমানে কয়েকজন প্রভাবশালীর আমলনামা খতিয়ে দেখছে দুদক। ইকবাল মাহমুদ বলেন, কোনো অভিযুক্ত ব্যক্তি নিজেকে নির্দোষ দাবি করে সহায়তার জন্য এলে কমিশন তার শুনানি গ্রহণ করবে। এ সময় তদন্ত কর্মকর্তার বক্তব্যও শোনা হবে। অভিযুক্ত ব্যক্তি জেলে থাকলেও কমিশনকে তার বক্তব্য জানানোর সুযোগ পাবেন।


আপনার মন্তব্য