Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
প্রকাশ : শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৩৭

আজ পবিত্র আশুরা

নিজস্ব প্রতিবেদক

আজ পবিত্র আশুরা

আজ শুক্রবার, হিজরি বর্ষের ১০ মহররম, পবিত্র আশুরা। বিশ্বব্যাপী মুসলমানদের কাছে দিনটি বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যময়। ইসলাম ধর্মমতে, মহান আল্লাহ এই দিনেই পৃথিবী সৃষ্টি করেছেন এবং এই দিনেই কিয়ামত সংঘটিত হবে। এই দিনেই বিশ্বে সংঘটিত অলৌকিক অনেক ধর্মীয় ঘটনার কারণে সব আসমানি কিতাবের অনুসারীদের কাছেই ১০ মহররম বিশেষভাবে মহিমান্বিত। মানব জাতির আদি পিতা হজরত আদম (আ.) ও মা হাওয়া (আ.) বেহেশত থেকে পৃথিবীতে এ দিনেই আগমন করেন। বহু বছরের প্রার্থনার পর এই দিনেই তাঁরা মহান আল্লাহর ক্ষমা লাভ করেন এবং আরাফার ময়দানে তাঁদের পুনরায় সাক্ষাৎ ঘটে। এ ছাড়া এই দিনেই ঐতিহাসিক কারবালা প্রান্তরে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর দৌহিত্র হজরত ইমাম হোসাইন (রা.) সপরিবারে মর্মান্তিকভাবে শাহাদাতবরণ করেন। হিজরি ৬১ সালের ১০ মহররম কারবালা প্রান্তরে ইসলামের সুমহান আদর্শের পতাকা সমুন্নত রাখতে ১০ দিন অবরুদ্ধ থেকে ইয়াজিদ বাহিনীর হাতে হজরত ইমাম হোসাইন (রা.) নির্মমভাবে শাহাদাতবরণ করেন। কিন্তু তবু মদ্যপ, ব্যভিচারী ও বেনামাজি ইয়াজিদকে ইসলামের খলিফা হিসেবে মেনে নেওয়ার অন্যায় দাবির কাছে নতিস্বীকার করেননি। এভাবেই নবী-দৌহিত্র হজরত ইমাম হোসাইন (রা.) উম্মতে মোহাম্মদীর সামনে কোনো ধরনের অন্যায়, জুলুম ও অত্যাচারের কাছে নতিস্বীকার না করার দৃষ্টান্ত রেখে যান। ইসলামের ইতিহাসের মর্মান্তিক এ বিয়োগান্তক ঘটনা বেদনার বিশেষ মাত্রা দিয়েছে। বিশ্বের অন্যান্য মুসলিম দেশের মতো বাংলাদেশেও যথাযোগ্য মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে দিনটি পালনের জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। আশুরা উপলক্ষে বাংলাদেশে আজ সরকারি ছুটি। শিয়া সম্প্রদায় দিনটিকে শোক ও মর্সিয়া দিবস হিসেবে পালন করে থাকে। রাজধানীতে হোসনি দালান ও মোহাম্মদপুর শিয়া মসজিদসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় আজ তাজিয়া মিছিল বের করবেন শিয়া সম্প্রদায়ের সদস্যরা। পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ পৃথক বাণী দিয়েছেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর