Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ জুন, ২০১৯ ২৩:৩২

লোটাস কামালের প্রথম বাজেট

নিজস্ব প্রতিবেদক

লোটাস কামালের প্রথম বাজেট

চ্যালেঞ্জ ও নতুন স্বপ্ন নিয়ে আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য অর্থমন্ত্রী হিসেবে আ হ ম মুস্তফা কামাল প্রথম বাজেট ঘোষণা করতে যাচ্ছেন আজ। আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী দেশের চলমান উন্নয়ন কর্মকা  অব্যাহত রাখা ও উচ্চতর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ধরে রাখা এবং করের বোঝা সহনীয় করাই অর্থমন্ত্রীর জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। এ চ্যালেঞ্জের কথা অবশ্য তিনি নিজেও একাধিকবার গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। ১১ জুন শুরু হওয়া জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনে গতকাল তিনি যোগ দেন। এর আগে মঙ্গলবার শারীরিকভাবে কিছুটা অসুস্থ বোধ করায় সেদিনই স্বাস্থ্য পরীক্ষা করান। এরপর গতকাল আবারও রাজধানীর এ্যাপোলো হসপিটালসে স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর বিকালে তিনি সংসদ অধিবেশনে যোগ দেন। অভিষেক বাজেটে কী চমক নিয়ে আসছেন, তা দেখার অপেক্ষায় রয়েছে দেশের সর্বস্তরের মানুষ। জাতীয় সংসদে ডিজিটাল পদ্ধতিতে তিনি আজ বাজেট উপস্থাপন করবেন। এটি হবে স্বাধীন বাংলাদেশের ৪৯তম বাজেট। ‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ : সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের’ শিরোনামে এবারের বাজেট হবে ‘স্মার্ট’ বাজেট। তার এ বাজেটে থাকবে দেশের ১৬ কোটি মানুষের স্বপ্ন পূরণের অঙ্গীকার। বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ টানা তৃতীয় দফায় ক্ষমতায় আসার পর তিনি আবুল মাল আবদুল মুুহিতের স্থলাভিষিক্ত হন। সংসদীয় আসন কুমিল্লা-১০ থেকে নির্বাচিত আ হ ম মুস্তফা কামাল বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের আগের মেয়াদে পরিকল্পনামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। এর আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) সভাপতি ছিলেন। তিনি একজন চার্টার্ড অ্যাকাউট্যান্ট। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একই আসন থেকে বিজয়ী হওয়ার পর দশম জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে গত ৩ জানুয়ারি একাদশ সংসদের সদস্য হিসেবে শপথ নেন। পরে ৭ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করলে তিনি অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। অর্থমন্ত্রী এরই মধ্যে একাধিকবার জানিয়েছেন, এবার বাজেট ঘোষণার পর একটি জিনিসের দামও বাড়বে না। এবারের বাজেট হবে সহজ ও সংক্ষিপ্ত ভাষায়। যা হবে জনগণের জন্য কল্যাণকর। কারও ওপর নতুন করে অতিরিক্ত করের বোঝা চাপানো হবে না। তবে করের আওতা বাড়ানো হবে। যারা করযোগ্য ব্যক্তি রয়েছেন প্রত্যেককে করের আওতায় আনার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। আবার একইভাবে সরকারের উন্নয়ন কর্মকা  অব্যাহত রাখারও প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন মুস্তফা কামাল। বিশেষ করে পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েসহ মেগা প্রকল্পগুলোর বাস্তবায়ন অর্থের জোগানে কোনো ধরনের সমস্যা না হয় সেদিকেও নজর রাখা হচ্ছে। একই সঙ্গে বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধি এবং গ্রামীণ জনপদের উন্নয়নকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে এবারের বাজেটে।


আপনার মন্তব্য