শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৫ জুন, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ জুন, ২০২০ ০০:৩২

মৃত্যুপুরী ব্রাজিল দিশাহারা

পাকিস্তানে মারা গেলেন মন্ত্রী ও তিন আইনপ্রণেতা

প্রতিদিন ডেস্ক

মৃত্যুপুরী ব্রাজিল দিশাহারা

বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬৬ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যাও প্রায় তিন লাখ ৯০ হাজার ছুঁইছুঁই। আর বর্তমানে মৃত্যুপুরী হিসেবে উঠে এসেছে ব্রাজিলের নাম। ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, বুধবার ২৪ ঘণ্টায় ব্রাজিলে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ২৬৯ জনের। এর পরের অবস্থানে ছিল যুক্তরাষ্ট্র। সেখানে এই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয় ১ হাজার ৮৩ জনের। এ ছাড়া এই সময়ের মধ্যে এদিন মেক্সিকোতে ৪৭০ জন, যুক্তরাজ্যে ৩৫৯ জন, ভারতে ২৫৯ জন, রাশিয়ায় ১৭৮ জন, পেরুতে ১২৭ জন, কানাডায় ১০৩ জন, ফ্রান্সে ৮১ জন, ইতালিতে ৭১ জন, ইরানে ৭০ জন, পাকিস্তানে ৬৭ জন, সৌদি আরবে ৩০ জন মারা যান। এ ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনে এখন আর কোনো মৃত্যু ও আক্রান্ত নেই। ২৪ ঘণ্টায় এদিন বিশ্বে মারা যান ৪ হাজার ৯২৮ জন।

ব্রাজিলের পরিস্থিতি ভয়াবহ : বিশেষজ্ঞদের মতে, ব্রাজিলে করোনাভাইরাসের প্রকৃত পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ। আক্রান্তের প্রকৃত সংখ্যাটা ১৫ বা এর বেশি গুণ হতে পারে বলে অনেকের ধারণা। মঙ্গলবার ব্রাজিলে আক্রান্ত-মৃত্যুর অধিকাংশই সাও পাওলোর। রাজ্যটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ২০ হাজার। মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৮ হাজার জনের।

পাকিস্তানে করোনায় ১ মন্ত্রী ও ৩ আইনপ্রণেতার মৃত্যু : পাকিস্তানে প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়ে দুই দিনে এক প্রাদেশিক মন্ত্রী ও তিন আইনপ্রণেতা মারা গেছেন। আক্রান্তের দিক থেকে চীনকে ছাড়িয়ে গেছে দেশটি। দেশটির গণমাধ্যম ডন জানিয়েছে, মঙ্গলবার করাচির একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সিন্ধু প্রদেশের মানব ব্যবস্থাপনাবিষয়ক মন্ত্রী গোলাম মুর্তজা বেলুচ। বুধবার করোনায় মারা গেছেন খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের আইনপ্রণেতা মিয়া জামশেদ কাকাখেল এবং পাঞ্জাব আইনসভার সদস্য শওকত মানজুর চীমা। এ ছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মঙ্গলবার মৃত্যুবরণ করেন আরেকজন আইনপ্রণেতা। এর আগেও একজন আইনপ্রণেতা মারা যান। দেশটিতে লকডাউনের কড়াকড়ি তুলে নেওয়ার পর থেকে করোনার সংক্রমণ হু হু করে বাড়ছে। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৮৫ হাজার ২৬৩ জন। আর চীনে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৮৩ হাজার ২২ জন।

ভারতে মৃত্যু ৬ হাজার ছাড়াল : ভারতে ২৪ ঘণ্টায় ৯ হাজারের বেশি মানুষের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে বলে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। বুধবার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত একদিনে দেশটিতে কভিড-১৯ আক্রান্ত ২৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে। একদিনে সর্বোচ্চ ৯ হাজার ৩০৪ জনের দেহে সংক্রমণ ধরা পড়ায়  দেশটিতে এখন শনাক্ত হওয়া আক্রান্তের সংখ্যা দুই লাখ ১৬ হাজার ৯১৯ জনে দাঁড়িয়েছে। ভারতের মধ্যে পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য মহারাষ্ট্রে কভিড-১৯ এ মৃত্যু আড়াই হাজার ছাড়িয়ে গেছে। ভাইরাস গুজরাটে ১ হাজার ১২২, দিল্লিতে ৬০৬, মধ্যপ্রদেশে ৩৭১, পশ্চিমবঙ্গে ৩৪৫, রাজস্থানে ২০৯ ও তামিলনাড়ুতে ২০৮ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার। আক্রান্তের সংখ্যায়ও মহারাষ্ট্র ভারতের রাজ্যগুলোর মধ্যে সবার ওপরে। এরই মধ্যে রাজ্যটিতে ৭৪ হাজার ৮৬০ জন কভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে। তালিকায় এরপর আছে দিল্লি, তামিলনাড়ু, গুজরাট, রাজস্থান, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, অন্ধ্র্রপ্রদেশ, কর্ণাটক, হরিয়ানা, জম্মু-কাশ্মীর ও আসামের নাম। পশ্চিমবঙ্গে এখন পর্যন্ত ৬ হাজার ৫০৮ জনের দেহে নতুন করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে; দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাবে এ রাজ্যে কভিড-১৯ এ ৩৪৫ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হলেও পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য দফতরের তথ্য অনুযায়ী এ সংখ্যা ২৭৩। তাদের হিসাবে বাকি ৭২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেও মৃত্যুর কারণ ভিন্ন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর