শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৩ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ জুলাই, ২০২১ ২৩:৩১

রূপগঞ্জে কারখানায় আগুন

ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ ৬৬ জনের, লাশ পেতে অপেক্ষা এক মাস

নিজস্ব প্রতিবেদক

Google News

অগ্নিকান্ডে নিখোঁজ স্বজনের লাশ পেতে প্রায় এক মাস অপেক্ষা করতে হবে ডিএনএ নমুনা দেওয়া অন্তত ৬৬ জনকে। তারা এরই মধ্যে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগে (সিআইডি) প্রোফাইলিংয়ের জন্য ডিএনএ নমুনা দিয়েছেন। সর্বশেষ গতকাল রাজধানীর মালিবাগে সিআইডি কার্যালয়ে আরও তিনজনের নমুনা ডিএনএ ল্যাবে সংগ্রহ করা হয়েছে। আগের দিন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) মর্গের সামনে বসানো বুথে নমুনা দিয়েছিলেন ৬৩ জন।

তবে এখন পর্যন্ত সরকারের কোনো সংস্থাই নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের হাসেম ফুডস লিমিটেড কারখানার অগ্নিকান্ডে নিহতদের তালিকা প্রস্তুত করতে পারেনি। ডিএনএ পরীক্ষার পর তাদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন সিআইডি কর্মকর্তারা।

গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঢামেক মর্গের সামনে নমুনা সংগ্রহের জন্য স্থাপিত অস্থায়ী বুথটি গুটিয়ে নেয় সিআইডি।

সিআইডির ফরেনসিক ল্যাবের ডিএনএ অ্যানালিস্ট নুসরাত ইয়াসমিন জানান, সর্বশেষ ৪৮ লাশের পরিচয় শনাক্তে ডিএনএ পরীক্ষার জন্য ৬৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। লাশগুলোর অবস্থা এতটাই খারাপ যে তাদের শরীর থেকে ডিএনএর জন্য রক্তসহ অন্য কোনো নমুনা সংগ্রহ করার উপায় নেই। তাই তাদের হাড় ও দাঁত সংগ্রহ করে ডিএনএ প্রোফাইলিং করা হচ্ছে। আর লাশ দাবিদার স্বজনদের রক্ত এবং বাক্কাল সোয়াব নেওয়া হচ্ছে।

এ ছাড়া নিহত বা নিখোঁজ কারও মা-বাবা অথবা স্বজন এলে সিআইডির ফরেনসিক ডিএনএ ল্যাবরেটরিতে যোগাযোগ করতে মর্গের সামনে নোটিসে জানানো হয়েছে। নোটিসে দুটি মোবাইল নম্বর (০১৬৭৩০১৬৯৭৩, ০১৭২৮২৫৬৬২৩) দেওয়া হয়েছে।

অগ্নিকান্ডে নিহত নোয়াখালীর আয়াত হোসেন, রাশেদ ও তারেক জিয়ার লাশ শনাক্তে গতকাল তাদের বাবাদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে সিআইডি কার্যালয়ে।

ঢামেক মর্গ সহকারী বাবুল জানিয়েছেন, অগ্নিকান্ডের পর উদ্ধার করা লাশগুলো ঢামেকের দুই মর্গে এবং সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছে।

৮ জুলাই বিকালে হাসেম ফুডস লিমিটেডের ছয় তলা জুস কারখানায় অগ্নিকান্ড ঘটে। ওই দিনই ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে তিনজন মারা যান। পরদিন শুক্রবার আগুন নিয়ন্ত্রণে এলে কারখানা ভবনের চতুর্থ তলা থেকে ৪৮ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে ডিএনএ পরীক্ষায় লাশ শনাক্তের কাজ শুরু করে সিআইডি। এভাবে শনাক্ত করে লাশ পরিবারকে বুঝিয়ে দিতে অন্তত তিন সপ্তাহ লাগতে পারে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের তথ্যমতে, ওই ঘটনায় ৫১ জন মারা গেছেন ও ২৫ শ্রমিক আহত হয়েছেন। শনিবার নারায়ণগঞ্জের ভুলতা পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক নাজিম উদ্দিন মজুমদার বাদী হয়ে সজীব গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল হাসেমসহ আটজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা করেন।

এই বিভাগের আরও খবর