শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২৩:৩৬

দিল্লিতে প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ায় বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার উদ্বোধন

নয়াদিল্লি প্রতিনিধি

দিল্লিতে প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ায় বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার উদ্বোধন
দিল্লিতে প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ায় বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দূতাবাসের মিনিস্টার (প্রেস) শাবান মাহমুদ এবং প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ার সেক্রেটারি জেনারেল বিনয় কুমার সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ -বাংলাদেশ প্রতিদিন
Google News

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ভারতের প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ায় বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। গতকাল বাংলাদেশ হাইকমিশন ও প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ার যৌথ আয়োজনে এক আনন্দঘন পরিবেশে এ মিডিয়া সেন্টারের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী তার বক্তব্যে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যকার ঐতিহাসিক ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তুলে ধরেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার স্থাপনের মাধ্যমে প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়া আবারও প্রমাণ করল ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক কতটা বন্ধুত্বের। মন্ত্রী বলেন, দুই দেশের জনগণের মধ্যে সম্পর্ক আরও দৃঢ় করা এবং দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক হৃদয়ের বন্ধনে অটুট রাখার ক্ষেত্রে সাংবাদিকরা ভূমিকা রাখতে পারেন। বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা এবং স্বাধীনতার মহানায়ক বঙ্গবন্ধুর স্মরণে প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ার ভূমিকা নিশ্চয়ই মাইলফলক হয়ে থাকবে। বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক যেমন উন্নত করবে তেমনি দুই দেশের জনতার সম্পর্কেও প্রসার ঘটাবে বলে মন্তব্য করেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বাংলাদেশ-মিয়ানমার বিষয়ে দায়িত্বে থাকা যুগ্মসচিব স্মিতা পন্থ তার বক্তব্যে বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতীয় সাংবাদিকদের ভূমিকা বিশ্বকে উজ্জীবিত করেছিল। আজ যখন চারদিকে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করে ইতিহাস বিকৃতির চেষ্টা চলছে তখন এসব ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দেওয়া প্রয়োজন। তিনি আরও বলেন, ভারত প্রেস ক্লাবের সভাপতি এবং বাংলাদেশ জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি দুই দেশের গণমাধ্যমের মধ্যে সম্পর্ক আদান-প্রদানের পথ সুগম করতে যেসব প্রস্তাব দিয়েছেন তা যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে। বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ ইমরান বলেন, আজ যে মিডিয়া সেন্টার স্থাপিত হলো তা বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকীর একটি অংশ। তবে এটিই শেষ নয়। ভারতের অন্য প্রান্তেও এ ধরনের সেন্টার তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হবে এবং এ ধরনের আরও নতুন নতুন সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

বাংলাদেশের জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, আমরা আশা করি বাংলাদেশ ও ভারতের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও উন্নত হবে। দুই দেশের মিডিয়া এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। আমি বিশ্বাস করি সাংবাদিকরা দুনিয়া বদলাতে পারেন। প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ার সভাপতি উমাকান্ত লাখেড়া এবং সেক্রেটারি জেনারেল বিনয় কুনার মিডিয়া সেন্টারের উদ্দেশ্য ব্যাখ্যা করে বলেন, এটি দুই দেশের জনগণের মধ্যে আস্থাবর্ধক হিসেবে কাজ করবে।

নয়াদিল্লির বাংলাদেশ হাইকমিশন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, মিডিয়া সেন্টারের জন্য প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়াকে বাংলাদেশ হাইকমিশন উন্নতমানের একাধিক কম্পিউটার, শীততাপ নিয়ন্ত্রণযন্ত্র এবং একটি এলইডি প্রজেক্টর, বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ এবং বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের ওপর রচিত মূল্যবান গ্রন্থ উপহার দিয়েছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর জীবনীর ওপর একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শিত হয়। মিডিয়া সেন্টারে বাংলাদেশ-ভারত দুই অংশের স্থায়ী আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন হয়েছে। এ ছাড়া তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং অন্য আমন্ত্রিত অতিথিদের উপস্থিতিতে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন বাংলাদেশ হাইকমিশনের মিনিস্টার (প্রেস) শাবান মাহমুদ ও প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ার সেক্রেটারি জেনারেল বিনয় কুমার। হাইকমিশন আরও জানায়, প্রেস ক্লাব অব ইন্ডিয়ার ৬৩ বছরের ইতিহাসে বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ঘিরে ভারতীয় গণমাধ্যমকর্মীদের মধ্যে ছিল ব্যাপক প্রাণচাঞ্চল্য। বহু রাজনৈতিক উত্থান-পতনের সাক্ষী এ প্রেস ক্লাবের সাংবাদিক সদস্য সংখ্যা সাড়ে ৪ হাজার।

এই বিভাগের আরও খবর