শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

বিদায়ী ইসির টেনশন বাকি ভোটে

গোলাম রাব্বানী

বিদায়ী ইসির টেনশন বাকি ভোটে

১৫ ফেব্রুয়ারি বিদায়ের আগে দেশব্যাপী বাকি প্রায় ৪ হাজার ইউনিয়ন পরিষদ, জেলা পরিষদ, ২০ পৌরসভা ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে ভোট করতে হবে বর্তমান নির্বাচন কমিশনকে। বিদায়ের আগে পাঁচ মাসের কম সময়ে দেশব্যাপী এসব নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে টেনশনে রয়েছে সাংবিধানিক এ সংস্থটি।

ইতিমধ্যে ইউনিয়ন পরিষদের প্রথম ধাপের ভোট শেষ হয়েছে। সদ্যসমাপ্ত এ নির্বাচনে জাল ভোট, ব্যালট ছিনতাইসহ নানা অভিযোগ উঠেছে। নির্বাচনী সহিংসতায় অন্তত ছয়জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এ অবস্থায় আসন্ন বিভিন্ন নির্বাচন কতটুকু সুষ্ঠু-শান্তিপূর্ণ করতে পারবে সে বিষয়ে চিন্তিত নির্বাচন কমিশনাররা। 

ইসির কর্মকর্তারা বলছেন, বিদায়ের আগে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে সব ধরনের নির্বাচন শেষ করার পরিকল্পনা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এক্ষেত্রে দেশব্যাপী ৪ হাজারের বেশি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপযোগী রয়েছে। জেলা পরিষদ, নারায়ণগঞ্জ সিটিতে বিদায়ের আগে ভোট করতে হবে বর্তমান কমিশনকে। এরআগে ইউপি নির্বাচনের প্রথম ধাপে ২১ জুন ২০৪টি এবং ১৬০টিতে ভোট হয় ২০ সেপ্টেম্বর। এ ভোটে অন্তত ছয়জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এ ছাড়া আগামী ৭ অক্টোবর ১৫ উপজেলা, ১ পৌরসভা, সিটি করপোরেশনের পাঁচ কাউন্সিলর ও পৌরসভার পাঁচ কাউন্সিলর পদে উপনির্বাচনের ভোট গ্রহণ হবে। আগামী ৯০ দিনের মধ্যে জাতীয় সংসদের একটি সংরক্ষিত আননে উপনির্বাচন করতে হবে ইসিকে। আগামী তিন মাসের মধ্যে এসব নির্বাচন অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নিতে চলতি মাসের শেষ দিকে আনুষ্ঠানিক বৈঠকে বসছে সাংবিধানিক এ সংস্থটি। এ মাসের শেষ দিকে তফসিল হতে পারে দ্বিতীয় ধাপের ইউপিসহ অন্যান্য নির্বাচনের। কোনো কারণে এ মাসের শেষ তফসিল না হলেও অক্টোবরের প্রথম এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার প্রস্তুতি রাখা হচ্ছে। তবে মোট চার ধাপে দেশব্যাপী ইউপি নির্বাচন শেষ করার প্রাথমিক পরিকল্পনা রয়েছে কমিশনের। 

স্থানীয় সরকারের নির্বাচনী পরিবেশসহ বিভিন্ন নির্বাচনের ভবিষ্যৎ নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। সদ্যসমাপ্ত ইউপি ভোটে বিনাপ্রতিদ্ধন্ধিতায় নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেছেন, নির্বাচন না করেই চেয়ারম্যান পদে অভিষিক্ত হওয়া এ নির্বাচনকে ম্লান করে দিয়েছে। অন্যদিকে ৯টা পৌরসভায় তিনজন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্ধন্ধিতায় মেয়র নির্বাচিত হন। নির্বাচন যেহেতু অনেকের মধ্যে বাছাই, সেহেতু বিনা প্রতিদ্ধন্ধিতায় পদে আসীন হওয়াকে নির্বাচিত হওয়া বলা যায় কি? নির্বাচনে সহিংসতা, ভোটের প্রতি আস্থাহীনতা- এমন সব সমস্যার সমাধানের জন্য ‘রাজনৈতিক সমঝোতা’র ওপর জোর দিয়েছেন তিনি। তিনি এক লিখিত বক্তব্যে বলেছেন, ভোটারদের নির্বাচন-বিমুখতাও আমার কাছে গণতন্ত্রের জন্য অশনিসংকেত মনে হয়। এর সঙ্গে নির্বাচন প্রক্রিয়া ও নির্বাচন ব্যবস্থাপনা জড়িত। ভোটের সহিংসতায় কয়েকজনের মৃত্যু এবং বিরোধীদের অনেক অভিযোগের প্রতিক্রিয়ায় মাহবুব তালুকদার বলেন, এহেন সংক্ষিপ্ত সময়ে আকস্মিকভাবে নির্বাচনী ব্যবস্থাপনার পরিবর্তন সাধন সম্ভব নয়। নির্বাচনে তিনজনের প্রাণহানি ঘটেছে। বিশৃঙ্খলা, অবৈধভাবে ব্যালটে সিল মারা, প্রতিপক্ষকে হুমকি প্রদান ইত্যাদি অনাকাক্সিক্ষত বিষয়ের পুনরাবৃত্তি রোধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন স্থানীয় নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিষয়ে ইসি সচিব হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেছেন, অক্টোবর থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে প্রায় ৪ হাজার ইউপিতে ভোট আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে। তবে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেবে কমিশন। এ মাসের শেষে কমিশন সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। ওই বৈঠকে কয় ধাপে ইউপি ভোট হবে বা কখন হবে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসতে পারে। নায়ায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ নির্বাচনের জন্য সময় আছে। ডিসেম্বরের মধ্যে হয়তো নির্বাচন আয়োজন করা হতে পারে। জেলা পরিষদ নির্বাচনের বিষয়ে তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে তালিকা দেওয়ার পর এ বিষয়ে পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে। ইসির নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, করোনা মহামারীর কারণে স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন নির্বাচন দীর্ঘদিন থেকে আটকে রয়েছে। নির্বাচন উপযোগী প্রায় ৪ হাজার ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আটকে রয়েছে। ইসির কর্মকর্তাদের ভাষায় নির্বাচনের জট লেগেছে নির্বাচন কমিশনে। আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি বিদায়ের আগেই এ নির্বাচনী জট নিয়ে অনেকটাই বিপাকে বর্তমান কমিশন। এরআগে গত ২১ জুনের ভোটে তিনজন এবং ২০ সেপ্টম্বরের ভোটে তিনজনসহ ইউপি ভোটে মোট ছয়জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এ ছাড়া আগামী তিন মাসের মধ্যে দেশব্যাপী ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠান করতে হলে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি কী হবে? তা নিয়েও ভাবছে কমিশন। কেননা ২০১৬ সালে দলীয় প্রতীকে প্রথম ইউপি নির্বাচন হয়। ওই সময়ে ছয় ধাপে এ ভোট শেষ করেছিল ইসি। তবুও নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা থামাতে পারেনি কমিশন। এবারে মাত্র তিন মাসে দেশব্যাপী তৃণমূলের প্রতিদ্ধন্ধিতামূলক এ নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে অনেকটা টেনশন করতে হচ্ছে কমিশনকে। কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন নির্বাচন কমিশন ২০১৭ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি শপথ নেন। আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি বিদায় নেবেন বর্তমান নির্বাচন কমিশনের সদস্যরা। সেই হিসাবে পাঁচ মাসের কম সময় তারা নির্বাচন কমিশনের সদস্য হিসেবে থাকছেন। তারপরই সাংবিধানিক সংস্থাটিতে দায়িত্ব নেবেন নতুন ব্যক্তিরা, যাদের অধীনে হবে পরবর্তী সংসদ নির্বাচন।

ডিসেম্বরে নারায়ণগঞ্জ সিটি ভোট : গত ১১ আগস্ট থেকে নির্বাচন উপযোগী হয়েছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন। ইসি জানিয়েছে, ২০১৬ সালের ২২ ডিসেম্বর এ সিটিতে ভোট গ্রহণ হয়। প্রথম সভা হয় ২০১৭ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি। সেই হিসাবে মেয়াদ শেষ হবে (প্রথম সভা থেকে পরবর্তী ৫ বছর) ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ সালে। মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্ববর্তী ১৮০ দিনের মধ্যে সিটি নির্বাচন করার আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

সর্বশেষ খবর