শিরোনাম
প্রকাশ : ৪ এপ্রিল, ২০২০ ২২:০৩

করোনায় কারাগার থেকে বের হয়েই পুলিশের স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা!

অনলাইন ডেস্ক

করোনায় কারাগার থেকে বের হয়েই পুলিশের স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা!

করোনাভাইরাস বিশ্বের অন্তত ২০০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১১ লাখ ৩০ হাজার এবং মৃতের সংখ্যা ৬০ হাজার ছাড়িয়েছে। এছাড়াও এ ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরে গেছেন ২ লাখ ২৩৫ হাজার। 

করোনায় সতর্কতায় কারাগার সুরক্ষায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ বন্দীদের মুক্তি দিচ্ছে। ঠিক তেমনি ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকারও এমনি সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এদিকে, করোনার সুযোগে মুক্তি পেয়েই পুলিশ সদস্যের স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করেছেন এক বন্দী। 

শনিবার ভারতের মহারাষ্ট্রের নাগপুরে এ ঘটনা ঘটেছে। 

নগরীর নন্দনভান এলাকায় ক্রাইম ব্রাঞ্চের প্রধান কনস্টেবল অশোক মুলের স্ত্রী সুশীলার গলা কেটে হত্যা করেছেন নবীন গোটাফোদে নামে এক আসামি। 

ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, মুক্তি পাওয়ার পর গোটাফোদে সুশীলার ছেলের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন। স্কুল জীবন থেকে তারা দু'জন বন্ধু ছিল। সুশীলা এই বন্ধুত্বের বিষয়ে আপত্তি জানানোয় রেগে যায় গোটাফোদ। শুক্রবার রাতে তিনি সুশীলার ছেলের সাথে দেখা করতে এসেছিলেন কিন্তু পারেননি।

তাই শনিবার তিনি আবার তাদের বাড়িতে ফিরে আসেন এবং সুশীলাকে গলা কেটে হত্যা করেন। তাকে থামানোর চেষ্টা করলে গোটাফোদ তার বন্ধুর ওপরও হামলা চালায়। পরে সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে পুলিশ কমিশনার নির্মলা দেবী জানান, করোনার প্রাদুর্ভাবে কারাগারে ভিড় কমাতে সম্প্রতি তাকে মুক্তি দেওয়া হয়েছিল। এ ঘটনায় গোটাফোদকে গ্রেফতারের জন্য খোঁজ চলছে। তার বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য