শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ নভেম্বর, ২০২০ ১৭:২০
প্রিন্ট করুন printer

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টকে ‘নাৎসি’ ডাকলেন পাকিস্তানি মন্ত্রী, অতঃপর..!

অনলাইন ডেস্ক

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টকে ‘নাৎসি’ ডাকলেন পাকিস্তানি মন্ত্রী, অতঃপর..!
শিরীন মাজারি ও এমানুয়েল মাক্রোঁ

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁর সঙ্গে নাৎসিদের তুলনা টানার পরে টুইটার থেকে সেই মন্তব্য মুছে ফেললেন পাকিস্তানের মানবাধিকারমন্ত্রী শিরীন মাজারি। মাজারির টুইটের কড়া সমালোচনা করে তা প্রত্যাহারের দাবি  জানায় ফ্রান্স। এরপরেই মন্তব্যটি মুছে ফেলেন ওই মন্ত্রী। 

একটি অনলাইন প্রতিবেদনের জেরে গত শনিবার মাজারি টুইটারে মন্তব্য করেন, ‘ইহুদিদের প্রতি নাৎসিরা যে আচরণ করেছিল মুসলিমদের প্রতি তেমনই আচরণ করছেন এমানুয়েল মাক্রোঁ। শুধুমাত্র মুসলিম শিশুদের পরিচিতিমূলক সংখ্যা দেওয়া হবে (অন্য শিশুদের জন্য নয়), ঠিক যে ভাবে ইহুদিদের পরিচিতির জন্য পোশাকের উপরে হলুদ তারা পরতে বাধ্য করেছিল নাৎসি সরকার।’

সম্প্রতি পাকিস্তানি সংবাদপত্র ডন-এর অনলাইন সংস্করণে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়, যেখানে দাবি করা হয় যে নতুন আইন পাশ করে ফ্রান্সের মুসলিম শিশুদের একটি সংখ্যা পরিচিতির নিয়ম আবশ্যিক করতে চলেছে মাক্রোঁর প্রশাসন। পরে অবশ্য প্রতিবেদন সংশোধন করে লেখা হয়, শুধু মুসলিম নয়, সব শিশুদের ক্ষেত্রেই এই নিয়ম চালু করছে ফরাসি সরকার। 

তার জেরে আগের টুইট মুছে দিয়ে মাজারি ফের মন্তব্য করেছেন, যে প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে তিনি মন্তব্য করেছিলেন, তা সংশোধন করা হয়েছে বলেই পুরনো টুইটটি তিনি মুছে দিয়েছেন। পাকিস্তানে নিয়োজিত ফরাসি রাষ্ট্রদূতের থেকে বার্তা পেয়েই নিজের ভুল শুধরে নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের মানবাধিকার মন্ত্রী। 

মাজারির প্রথম টুইটটির কড়া সমালোচনা করে ফরাসি সরকারের ইউরোপ ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি, পাকিস্তানি মন্ত্রীর টুইট সংশোধন করার দাবিও জানানো হয়। পাকিস্তানে নিয়োজিত ফ্রান্সের চার্জ ডি অ্যাফেয়ার্সকে এই মর্মে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেও জানায় মন্ত্রণালয়। 

উল্লেখ্য, গত একমাসে ব্যঙ্গ পত্রিকা শার্লি এবদো একটি ব্যঙ্গচিত্র পুনঃপ্রকাশের ঘোষণা এবং তার বিরুদ্ধে ফরাসি প্রেসিডেন্ট মাক্রোঁর কোনও পদক্ষেপ না নেওয়ায় চাপ সৃষ্টি হয় বিশ্বজুড়ে। বয়কট ও সমালোচনার মুখে পড়ে ফ্রান্স সরকার।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৪:৫৫
প্রিন্ট করুন printer

পাল্টে যাচ্ছে কলম্বিয়ার ফার্ক পার্টির নাম!

অনলাইন ডেস্ক

পাল্টে যাচ্ছে কলম্বিয়ার ফার্ক পার্টির নাম!
রড্রিগো লন্ডনো

কলম্বিয়ার আলোচিত রাজনৈতিক দল কমন অল্টারনেটিভ রেভলিউশনারি ফোর্স (ফার্ক) এর  নাম পরিবর্তন করে 'কমিউনেস' (বাংলায় এর অর্থ জনসাধারণ) রাখতে যাচ্ছে। পার্টির নেতা রড্রিগো লন্ডনো রবিবার টুইট করে বলেছেন, 'আমি কলম্বিয়া এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবহিত করতে চাই যে, আজ থেকে আমরা 'কমিউনেস' নামটি ব্যবহার করব, কারণ আমরা সাধারণ মানুষের একটি দল যারা সাধারণ মানুষের পক্ষে মঙ্গলময় ও  ন্যায়বান একটি দেশ প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে যাচ্ছি।

লন্ডনো টুইটারে আরও বলেন, 'এখন দেশের সব ডেমোক্র্যাটদের নিয়ে একটি দুর্দান্ত জোট গঠনের সময় এসেছে।' জোটের এই পরিবর্তন ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে দেশটির সশস্ত্র সংঘাতের ইতিহাস থেকে সরে যাওয়ার ইঙ্গিত দেয়, যে সংঘাতে বহু বেসামরিক নাগরিকসহ কমপক্ষে ২ লাখ ২০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছিল।

নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্তটি সম্প্রতি মেডেলিন শহরে আয়োজিত পার্টির একটি সমাবেশে গৃহীত হয়েছিল। দলকে এখন জাতীয় নির্বাচনী পরিষদে নতুন নামটি নিবন্ধন করতে হবে।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালের ১৩ মার্চ কংগ্রেসনাল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

১৯৬৪ সালে গঠিত রেভলিউশনারি আর্মড ফোর্সেস অফ কলম্বিয়া (ফার্ক) এর লক্ষ্য ছিল সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করা, সম্পদের পুনরায় বিতরণ এবং বৈষম্যের বিরুদ্ধে লড়াই করা। বছরের পর বছর ধরে, এটি মাদক পাচার, বোমাবাজি, হত্যা, চাঁদাবাজি এবং অপহরণের অভিযোগে অভিযুক্ত ছিল। ২০১৬ সালের নভেম্বরে চূড়ান্ত চুক্তি স্বাক্ষর হওয়া পর্যন্ত কয়েক বছর ধরে ফার্ক এবং সরকারের মধ্যে শান্তি চুক্তির বেশ কয়েকটি প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছিল।

চুক্তির অংশ হিসেবে সেসময় নবগঠিত ফার্ক দলের সদস্যদের কংগ্রেসে আসন বরাদ্ধ হয়েছিল। তবে গেরিলারা ফার্ক সংক্ষিপ্ত শব্দটির ব্যবহার অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। তবে এটির মূল অর্থ পরিবর্তন করে 'রেভলিউশনারি আর্মড ফোর্সেস অফ কলম্বিয়া' পরিবর্তে 'কমন  অল্টারনেটিভ  রেভলিউশনারি  ফোর্স' এ পরিণত করা হয়েছিল।

সূত্র: সিএনএন

বিডি প্রতিদিন/অন্তরা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৪:১৬
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৪:১৮
প্রিন্ট করুন printer

পাকিস্তানি এয়ারলাইন্সে ভ্রমণ না করতে স্টাফদের প্রতি জাতিসংঘের নির্দেশনা

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানি এয়ারলাইন্সে ভ্রমণ না করতে স্টাফদের প্রতি জাতিসংঘের নির্দেশনা

পাকিস্তানি কোনও এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে ভ্রমণ করার ক্ষেত্রে স্টাফদের প্রতি সতর্কতা জারি করেছে জাতিসংঘ।

সম্প্রতি পাকিস্তানি পাইলটদের লাইসেন্স কেলেঙ্কারির পর এই সতর্কতা জারি করল জাতিসংঘ। খবর অনলাইন সিম্পল ফ্লাইংয়ের।

ইতিমধ্যে ভুয়া লাইসেন্স নিয়ে প্লেন চালানোর জন্য বেশ কয়েকজন পাকিস্তানি পাইলটের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এমনটা হয়েছে দেশে ও দেশের বাইরে।  জাতিসংঘ এক্ষেত্রে একটি বিবৃতিতে পাকিস্তানের ১৪টি বিমান সংস্থার নাম উল্লেখ করেছে। তার মধ্যে রয়েছে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স (পিআইএ)। 

পাকিস্তানের কিছু পাইলটের লাইসেন্স কেলেঙ্কারিতে বেশ কিছু দেশ ব্যবস্থা নিয়েছে। অবশেষে এর সঙ্গে যুক্ত হল জাতিসংঘ।

উল্লেখ্য, গত জুনে পাকিস্তানের বেসামরিক বিমান চলাচল বিষয়ক মন্ত্রী গোলাম সারওয়ার খান বলেন, পাকিস্তানের শতকরা প্রায় ৩০ ভাগ পাইলটের রয়েছে ভুয়া লাইসেন্স। তারা বিমান চালানোর জন্য যোগ্যতাসম্পন্ন নন। তার এমন স্বীকারোক্তি বিশ্বজুড়ে বেসামরিক বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে একটি হতাশার সৃষ্টি করে। বৃদ্ধি পায় নিরাপত্তা ইস্যু নিয়ে ভয়াবহ এক আতঙ্ক। এ অবস্থার প্রেক্ষিতে দেশটির সরকারি বিমান সংস্থা পিআইএ দ্রুততার সঙ্গে মোট ৪৩৪ জন পাইলটের মধ্য থেকে ১৫০ জনকে সাময়িক বরখাস্ত করে। তাদের বিরুদ্ধে ভুয়া লাইসেন্স ব্যবহারের অভিযোগ আছে। এর অর্থ হল পাকিস্তানের শতকরা প্রায় ৩৫ ভাগ পাইলট বিমান চালাতে যোগ্যতা রাখেন না।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৪:০৬
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৪:৪০
প্রিন্ট করুন printer

বেপরোয়া আচরণ করছে চীনা বিমানবাহিনী, অভিযোগ তাইওয়ানের

অনলাইন ডেস্ক

বেপরোয়া আচরণ করছে চীনা বিমানবাহিনী, অভিযোগ তাইওয়ানের

তাইওয়ানের সঙ্গে বেপরোয়া আচরণ করছে চীনা বিমানবাহিনী। এমন অভিযোগ করেছে তাইওয়ান কর্তৃপক্ষ।

দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত শনিবার চীনের আটটি বোমারু বিমান এবং চারটি যুদ্ধবিমান দ্বীপের বিমান প্রতিরক্ষা শনাক্তকরণ অঞ্চলের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে প্রবেশ করেছিল। খবর দ্য সিঙ্গাপুর পোস্টের।

এদিকে চীনের দাবি, তাইওয়ান তাদের নিজস্ব অঞ্চল। আর সাম্প্রতিক মাসগুলোতে তাইওয়ানের দক্ষিণাঞ্চল এবং দক্ষিণ চীন সাগরের তাইওয়ান নিয়ন্ত্রিত প্রাতাস দ্বীপপুঞ্জের মাঝামাঝি স্থান দিয়ে প্রায় প্রতিদিন বিমান পরিচালনা করেছে চীন।

সেখানে এতগুলো চীনা যুদ্ধবিমানের উপস্থিতি ভাবিয়ে তুলেছে তাইওয়ানকে। তাইওয়ান বলছে, আটটি পারমাণবিক-ক্ষমতা সম্পন্ন এইচ-৬কে বোমারু বিমান এবং চারটি জে-১৬ যুদ্ধবিমান নিয়ে এভাবে উড়ে যাওয়ার বিষয়টি অস্বাভাবিক ছিল।

তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় একটি মানচিত্রে দেখিয়েছে, ওয়াই-৮ অ্যান্টি-সাবমেরিন বিমানসহ চীনা বিমানগুলো যে জায়গা দিয়ে গেছে, প্রাতাস দ্বীপপুঞ্জের নিকটের সেই জায়গা থেকে অনেক দূরে সাম্প্রতিক চীনের অন্য মিশনগুলো হয়েছে। কিন্তু এবার তারা তাইওয়ানের মূল ভূখণ্ডে ঢুকে পড়েছে।

তাইওয়ানের বিমানবাহিনী চীনের বিমানকে সতর্ক করে দিয়ে বলছে, পর্যবেক্ষণের জন্য ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে তারা বলছে, বিমান আসার ব্যাপারে সতর্কতা জারি করা হয়েছিল, রেডিও সতর্কতা জারি করা হয়েছিল এবং বিমান প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থাটি মোতায়েন করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, তাইওয়ানের ওপর চাপ প্রয়োগ বন্ধ করা দরকার চীনের। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস বলেছেন, আমরা বলব যে, চীন তাদের সেনা, কূটনীতি এবং অর্থনৈতিকভাবে তাইওয়ানের ওপর চাপ প্রয়োগ বন্ধ করুক। এর বদলে তাইওয়ানের গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নির্বাচিত ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে অর্থপূর্ণ আলোচনায় বসুক। সূত্র: দ্য সিঙ্গাপুর পোস্ট

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:১৫
প্রিন্ট করুন printer

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ শুনতে সুপ্রিম কোর্টের অস্বীকৃতি

অনলাইন ডেস্ক

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ শুনতে সুপ্রিম কোর্টের অস্বীকৃতি

ক্ষমতায় নেই তাই সদ্য সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ শুনবেন না মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট। স্থানীয় সময় সোমবার মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট এ অস্বীকৃতি জানান। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বিদেশি সরকার থেকে মুনাফা করতে পারবেন না। এ বিষয়ে দেশটির সংবিধানে বিধি আছে। বিধিটি ট্রাম্প লঙ্গন করেছেন কী না- সে বিষয়েই অভিযোগটি তোলা হয়েছিল।

মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট অভিযোগ শুনতে শুধু অস্বীকৃতি জানিয়েছেন, তা নয়।  ট্রাম্পের বিরুদ্ধে দেওয়া মতামত মুছে ফেলতে নিম্ন আদালতকেও নির্দেশ দিয়েছেন। কারণ ট্রাম্প আর ক্ষমতায় নেই।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রে সাধারণত সাবেক প্রেসিডেন্টদের বিচার হয় না। যদিও ট্রাম্পের ক্ষেত্রে এর ব্যত্যয় ঘটছে। তাকে চলতি জানুয়ারি মাসেই দ্বিতীয়বারের মতো অভিসংশিত করে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ। এবার সিনেটে তাকে অভিসংশনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। 

গত নভেম্বরে অনুষ্ঠিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফল মানতে না পারলেও গত ২০ জানুয়ারি হোয়াইট হাউজ ছেড়ে চলে যান ট্রাম্প। একই দিন ক্ষমতাগ্রহণের পর পুরোদমে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে জো বাইডেন প্রশাসন।   

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১২:৫৮
প্রিন্ট করুন printer

কাশ্মীরে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ভারতীয় পাইলট নিহত

অনলাইন ডেস্ক

কাশ্মীরে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ভারতীয় পাইলট নিহত

ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলায় দেশটির সেনাবাহিনীর একটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে এক পাইলট নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অপর পাইলটকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যায় পাঞ্জাবের পাঠানকোট থেকে সেনাবাহিনীর ওই হেলিকপ্টারটি কাশ্মীরে আসার পথে কাঠুয়া জেলার লাখানপুরে দুর্ঘটনায় পড়ে। 

ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, জরুরি অবতরণের সময় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে গুরুতর আহত হেলিকপ্টারের দুই পাইলটকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক এক পাইলটকে মৃত ঘোষণা করেন। আরেকজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ ধারণা করছে, আকাশে হেলিকপ্টারটিতে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা যায়। এরপর অবতরণের সময় তা দুর্ঘটনার কবলে পড়ে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

এই বিভাগের আরও খবর