৫ নভেম্বর, ২০২১ ০৮:৪৮

পানিতে চুবিয়ে ও শ্বাসরোধ করে পাঁচ সন্তানকে হত্যা, জার্মান নারীর যাবজ্জীবন

অনলাইন ডেস্ক

পানিতে চুবিয়ে ও শ্বাসরোধ করে পাঁচ সন্তানকে হত্যা, জার্মান নারীর যাবজ্জীবন

পানিতে চুবিয়ে ও শ্বাসরোধ করে পাঁচ সন্তানকে হত্যার দায়ে এক নারীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে জার্মানির একটি আদালত। বৃহস্পতিবার তার সাজা ঘোষণা করা হয়। ওই নারী তার ছয় সন্তানের মধ্যে পাঁচ জনকেই হত্যা করেছেন। ওই হত্যাকাণ্ড থেকে তার ১১ বছর বয়সী ছেলে সৌভাগ্যক্রমে বেঁচে যায় কারণ ওই সময় সে স্কুলে ছিল। 

ক্রিসটিয়ান কে নামে ২৮ বছর বয়সী ওই নারী ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে সন্তানদের বাথটাবের পানিতে চুবিয়ে বা শ্বাসরোধ করে হত্যায় অভিযুক্ত হন। তবে ক্রিসটিয়ান নিজেকে নির্দোষ দাবি করে জানিয়েছেন, মাস্ক পরা এক ব্যক্তি তার ফ্ল্যাটে ঢুকে সন্তানদের হত্যা করেছেন। কিন্তু তার দাবির সত্যতা খুঁজে পাননি তদন্তকারীরা।

সোলিংগেন শহরে ওই নারীর তিন মেয়ে এবং দুই ছেলের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মেয়ে শিশু তিনটির বয়স যথাক্রমে এক, দুই এবং তিন বলে জানানো হয়। অপরদিকে দুই ছেলের মধ্যে একজনের বয়স ছিল ৬ এবং অন্যজনের ৮ বছর। তাদের মরদেহ তোয়ালে প্যাচানো অবস্থায় ছিল বিছানার ওপর।

ওই নারী সে সময় ডুয়েসেলডর্ফ স্টেশনে একটি ট্রেনের নিচে পড়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। কিন্তু তাকে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়।

প্রসিকিউটররা জানিয়েছেন, সন্তানদের হত্যার আগে তাদের নাস্তায় ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে দিয়েছিলেন ওই নারী। এমন হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ওই নারীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়ার দাবি জানান প্রসিকিউটররা। ওই নারীকে ভয়ানক ‘হিংসুটে’ বলে আখ্যায়িত করে তার কারাবাসের প্রথম ১৫ বছরে তার জন্য প্যারোলে মুক্তির আবেদনের কোনো সুযোগও রাখেননি মামলার প্রসিকিউটররা।

বিডি প্রতিদিন/এএম

এই রকম আরও টপিক

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর