শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৩৮

ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে তৈরি বাড়ি

ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে তৈরি বাড়ি
ঘরের ছাদে ব্যবহৃত হয়েছে রকেট

ক্ষেপণাস্ত্র বা রকেট। যা দিয়ে নিমিষে ধ্বংস করে দেওয়া যায় কোনো এলাকা বা দেশ। সেই ক্ষেপণাস্ত্র ও তার যন্ত্রপাতি দিয়ে যদি বাড়ি তৈরি হয় তা হলে কেমন হবে! গল্প বা জোকস নয়। সত্যিই এই রকেট দিয়ে তৈরি হয়েছে বাড়ি। একটি বা দুটি নয় পুরো কয়েকটি গ্রাম। কোনো বাড়ির ছাদের বিম তৈরি রকেট দিয়ে। কোনো বাড়িতে আবার দরজা বন্ধ করা হয় রকেট দিয়ে। এমনকি গ্রামের সেতুও রকেট দিয়ে বানানো। একটি বাড়ির ভাঁড়ার ঘর তৈরি সাতটি ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে। এ ধরনের ঘরবাড়িতেই লোকজন দিব্যি বাসও করছে। চলছে সংসারের কাজকর্ম। আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলের কয়জেলাবাদ গ্রামে রয়েছে এমন ঘরবাড়ি। বিবিসি অনলাইনের এক ভিডিওতে ইজাতুল্লাহ নামে এক ব্যক্তির বাড়ি দেখা যায়। ইজাতুল্লাহ জানান, বাড়ির ছাদের বিমের জন্য রকেটগুলো আনার সময় তিনি নিতান্তই কিশোর। রকেটগুলো গত শতকের আশির দশকের। রাশিয়ার তৈরি। রাশিয়া চলে যাওয়ার পর আফগানিস্তানের বাসিন্দাদের হাতে টাকা-পয়সা ছিল না। ঘরবাড়ি তৈরির মতো জিনিসপত্র কেনাও কঠিন ছিল। পরে রুশ বাহিনীর ফেলে যাওয়া অস্ত্র দিয়েই চলে বাড়ি তৈরির কাজ। রকেট আর ক্ষেপণাস্ত্রের ঘরে এভাবে থাকা কতটা নিরাপদ? জানতে চাইলে কোনো উত্তর দিতে পারেননি ইজাতুল্লাহ। গ্রামে আসা এক পর্যবেক্ষক বিষয়টি খেয়াল করেন। তিনি গ্রামবাসীকে এ ব্যাপারে সচেতন করেন। গ্রামে বিস্ফোরক ধ্বংসের যন্ত্রও পাঠান। এই পর্যবেক্ষক জানান, একদিনে গ্রামটিতে তারা ৪০০ রকেট দেখেছেন। এগুলো বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা হয়েছে। একটি বাড়িতে তারা ২৬টি রকেট খুঁজে পেয়েছেন। পর্যবেক্ষক দলের উদ্যোগে ঘরবাড়ি থেকে রকেটগুলো সরানো হয়। সরানোর পর রকেটগুলো সীমান্ত এলাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সব ক্ষেপণাস্ত্র ও রকেট বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

বিপদমুক্ত হয়ে খুশি হন ইজাতুল্লাহ ও অন্যরা।


আপনার মন্তব্য