শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২৩:৪৯

উবারে মাসে গড়ে ২০ ধর্ষণ অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রে

উবারে মাসে গড়ে ২০ ধর্ষণ অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রে

২০১৭ ও ২০১৮ সালে কেবল যুক্তরাষ্ট্রে ৬ হাজার যৌন নিপীড়নের অভিযোগ পেয়েছে উবার। অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠানটি নিজস্ব উদ্যোগে এ তথ্য প্রকাশ্যে এনেছে। ২০১৭ সালের তুলনায় ২০১৮ সালে হয়রানির অভিযোগ ১৬ শতাংশ কমেছে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উবারের বিরুদ্ধে বিশ্বজুড়ে সমালোচনার হার বাড়ছে। তদন্তের মুখে পড়েছে রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠানটি। সম্প্রতি লন্ডনে নিষিদ্ধ হয়েছে উবার। প্রতিষ্ঠানটির নিজস্ব প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে,  গত দুই বছরে যুক্তরাষ্ট্রে ২৩০ কোটির বেশি ট্রিপ/যাত্রা সম্পন্ন করেছে তারা। মোট ভ্রমণের ৯৯ দশমিক ৯ শতাংশই সম্পন্ন হয়েছে নিরাপত্তা সমস্যা ছাড়াই। আর মোট ট্রিপের মধ্যে ৫ হাজার ৯৮১টি যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠেছে। গত বছর যুক্তরাষ্ট্রে রাইড চলাকালীন ২৩৫টি ধর্ষণের অভিযোগ পেয়েছে উবার। সে হিসাবে প্রতি মাসে দেশটিতে গড়ে ২০টি ধর্ষণের অভিযোগ পেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ২০১৭ সালে ধর্ষণের অভিযোগ ২২৯টি। উবারের প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা গেছে, ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠানটির চালক এবং যাত্রী উভয়েই। যৌন হয়রানির সবচেয়ে গুরুতর পাঁচটি শ্রেণিতে যে অভিযোগগুলো পাওয়া গেছে তার মধ্যে ৪৫ শতাংশই রাইডারের বিরুদ্ধে। আর ধর্ষণের অভিযোগগুলোর ৯২ শতাংশ এসেছে চালকের বিরুদ্ধে। প্রতিবেদনে উবারের প্রধান আইন কর্মকর্তা টনি ওয়েস্ট বলেন, ‘জটিল নিরাপত্তার বিষয়গুলো নিয়ে স্বেচ্ছায় বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশের বিষয়টি সহজ নয়।’ যৌন হয়রানি বন্ধে উবার বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে বলেও জানিয়েছেন ওয়েস্ট।


আপনার মন্তব্য