সোমবার, ৫ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন ফের যুদ্ধের শঙ্কা

আন্তর্জাতিক বিশ্ব মনে করছে ইসরায়েল অস্ত্র বিরতি চুক্তি অমান্য করছে

ফের আরব-ইহুদি দ্বন্দ্বে যুদ্ধের শঙ্কা দেখা দিয়েছে ফিলিস্তিনের পশ্চিমতীরে। ইসরায়েলের অভিযোগ, তাদের লক্ষ্য করে আগুন বেলুন ওড়ায় ফিলিস্তিন। এর পরিপ্রেক্ষিতে হামলা চালায় ইসরায়েলও। শনিবারের সেই হামলায় এক নিরীহ যুবক নিহত হয়েছে। তবে আন্তর্জাতিক বিশ্ব মনে করছে ইসরায়েল অস্ত্র বিরতি চুক্তি অমান্য করছে।

ফিলিস্তিন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দাবি, মৃতের নাম মোহাম্মদ ফারিদ হাসান (২০)। বাড়ি নেবুলা শহরের কুসেরা গ্রামে। এই এলাকায়ই দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি চলছিল। স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যায় নিজের বাড়ির ছাদে দাঁড়িয়ে ছিলেন ফারিদ। সেই সময় গুলিবিদ্ধ হন তিনি। এদিকে জখম হন আরও ২ জন। এদিকে ইসরায়েলের দাবি, কুসেরা গ্রামের কাছে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিন নাগরিকদের মধ্যে বচসা বাধে। দুপক্ষই একে অপরকে লক্ষ্য করে ইট ছুড়তে শুরু করে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে অশান্ত হয়ে ওঠে ওই এলাকা। পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করে উপস্থিত সেনারা। সেই সময় দেখা যায়, এক যুবক সেনা জওয়ানদের লক্ষ্য করে আগুন বেলুন ছুড়ছে। এরপরই তাকে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। উল্লেখ্য, গত মে মাসে জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদে ইহুদি ও মুসলিম সম্প্রদায়ের অনুগামীদের মধ্যে সংঘাত শুরু হয়। তারপর তা ক্রমে ভয়াবহ আকার নেয়। রমজানের নামাজ পড়তে জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদে জড়ো হয়েছিলেন হাজার হাজার মুসলমান। সেখান থেকেই সংঘাতের সূত্রপাত। তারপর প্রায় ১১ দিন ধরে হামাস ও ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর মধ্যে যুদ্ধ হয়। ওই সংঘর্ষে ২৫৬ জন নিরীহ ফিলিস্তিনের মৃত্যু হয়। তাদের মধ্যে ৬৬টি শিশু। এদিকে ইসরায়েলে ১৩ জনের মৃত্যু হয়। তার মধ্যে দুটি শিশু। অবশেষে মিসরের হস্তক্ষেপে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেছিল দুই পক্ষ। সাময়িকভাবে শান্তি ফিরলেও জুনের তৃতীয় সপ্তাহ থেকেই নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে দুই দেশের মধ্যে। হামাসের বিরুদ্ধে একাধিকবার বেলুন হামলার অভিযোগ উঠেছে। পালটা এয়ারস্ট্রাইক করে উত্তর দিয়েছে ইসরায়েল। ফলে ফের ক্রমে উত্তপ্ত হতে শুরু করেছে পরিবেশ।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর