Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:৫০

গুনাহকে ছোট মনে করতে নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক

গুনাহকে ছোট মনে করতে নেই
প্রতীকী ছবি

হায়! জীবন কত ছোট। বিন্দু বিন্দু সময় গড়িয়ে বেলা শেষে যখন ডাক এসে যায়, তখন একবুক হাহাকার নিয়ে বিদায় নিতে হয়। বিদায় নিতে হয় বড় বিষন্ন মনে। কারণ, এই ছোট্ট জীবনটুকু যেভাবে যে পথে চালানোর কথা আমরা সেভাবে সে পথে চালাতে পারিনি। প্রতি মুহূর্তে একটু একটু করে জীবনের বরফ গলছে আর যাওয়ার সময় ঘনিয়ে আসছে। এত ক্ষুদ্র জীবন, তাও আমরা কতটা বেখেয়াল। তাই তো জেনে না জেনে ছোট-বড় কত গুনাহই না আমরা করে ফেলছি প্রতিদিন। আফসোস! গুনাহ এখন আর আমাদের কাছে গুনাহ মনে হয় না। যারা বেপরোয়া জীবনযাপন করে, তাদের কথা না হয় বাদই দিলাম। কিন্তু আমরা যারা ধর্ম মানি, আল্লাহকে চিনি আমরাও কি নিজেদের গুনাহ থেকে বাঁচিয়ে রাখছি? আমাদের দ্বারা হয়তো বড় ধরনের গুনাহ হয় না ঠিক বা কম হয়, কিন্তু ছোট ছোট গুনাহ তো আমরা অহরহ করে যাচ্ছি। 

বলা যায়, এক প্রকার গুরুত্বই দিই না ছোট গুনাহকে। একইভাবে ছোট ছোট নেক কাজ আমাদের চোখে মূল্যহীন। আমাদের সমাজে অবহেলিত। অথচ আল্লাহ বলেছেন, ‘কেউ যদি অণু পরিমাণ ভালো কিংবা খারাপ কাজ করে, তাও সে হিসাবের দিন দেখতে পাবে।’ সূরা জিলজাল, আয়াত ৭-৮। পীরের কাছে যখন মুরিদ প্রথম সবক নিতে যায়, তখন কিন্তু বুদ্ধিমান পীর মুরিদকে বড় কোনো আমলের কথা বলেন না। কিংবা বলেন না বড় কোনো গুনাহ ছেড়ে দেওয়ার কথা। তারা সব সময় ছোট ছোট বিষয় দিয়ে শুরু করান। 

যেমন বলেন, বাবা! তুমি যা-ই কর, মিথ্যা বলাটা ছেড়ে দাও। অথবা বলেন, বাবা! তুমি এখন থেকে খারাপ নজরে মানুষকে দেখবে না। এমন ছোট ছোট গুনাহ ছেড়ে দেওয়ার মাধ্যমে একজন নাপাক-গুনাহগার মানুষকে জমানার শ্রেষ্ঠ অলি হিসেবে গড়ে তোলেন আল্লাহওয়ালা কামিল পীর। আর শয়তান যখন কাউকে ধোঁকা দিতে চায়, তাকে কিন্তু প্রথমেই বড় কোনো গুনাহর কথা বলে না। একেবারে মামুলি কিছু গুনাহর কথা বলে। যা হয়তো বাইরে থেকে গুনাহ মনে নাও হতে পারে। যেমন শয়তান বলে, আজ তো বাইরে বৃষ্টি বা ঠান্ডা বেশি। জামাতে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। এভাবে আস্তে আস্তে ছোট থেকে বড় গুনাহর দিকে বান্দাকে নিয়ে যাওয়া হয়। একদিন সে নামাজ পড়াই ছেড়ে দেয়। একসময়ের শ্রেষ্ঠ অলিও শয়তানের ধোঁকায় ধ্বংসের গভীর খাদে পড়ে গেছে, এমন উদাহরণ কম নেই ইতিহাসে। তাই গুনাহ ছোট বলে তাকে গুরুত্বহীন মনে করতে নেই। এক আল্লাহর অলি তার মুরিদদের সব সময় বলতেন, বাবারা! মনে রেখ, আগুন কিংবা সাপকে কখনো ছোট মনে কোরো না। এ দুটো ছোট হলেও তোমার জীবন ও সম্পদ শেষ করে দিতে পারে। একইভাবে গুনাহকেও ছোট মনে কোরো না। ছোট গুনাহই তোমার বড় আখেরাতকে নষ্ট করে দিতে পারে। কবি শেখ সাদি (রহ.) বড় সুন্দর উপদেশ দিয়েছেন আমাদের। তিনি বলেছেন, ‘পাপকে ছোট মনে কোরো না। এই ছোট পাপ থেকে যদি তুমি বেঁচে থাকতে না পার, এমন একদিন আসবে, বড় পাপ থেকেও তুমি ফিরতে পারবে না।’

লেখক : সুপার, নন্দীপাড়া সোনার মদিনা হাফেজিয়া দাখিল মাদ্রাসা খিলগাঁও ঢাকা।


আপনার মন্তব্য