শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৭:২৪
আপডেট : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৭:৩২

জঙ্গি হামলার প্রতিবাদে মোমবাতি মিছিল মমতার

দীপক দেবনাথ, কলকাতা

জঙ্গি হামলার প্রতিবাদে মোমবাতি মিছিল মমতার

কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার প্রতিবাদ এবং নিহত জওয়ানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে মোমবাতি মিছিলে শরিক হলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস প্রধান মমতা ব্যনার্জি। শনিবার বিকালে শহীদ জওয়ানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে মোমবাতি মিছিলের আয়োজন করে তৃণমূল।

বিকাল চারটা নাগাদ দক্ষিণ কলকাতার হাজরা মোড় থেকে মিছিলের যাত্রা শুরু হয়। মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও মিছিলে অংশ নেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, ফিরহাদ হাকিম ও শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়, সাংসদ সুব্রত বক্সি, দোলা সেন সহ রাজ্যের একাধিক মন্ত্রী, সাংসদ ও বিধায়করা। মোমবাতি হাতে নিয়ে মিছিলে শরিক হয়েছিলেন দলের অসংখ্য কর্মী-সমর্থকরাও। মিছিল শেষ হয় কলকাতার মহাত্মা গান্ধীর মূর্তির পাদদেশে। 

ট্যুইট করে এদিন মমতা নিজেও জানান ‘আমরা আমাদের জওয়ান, দেশবাসী ও ঐক্যবদ্ধ ভারতের সাথে থাকার সংহতি প্রকাশ করছি। এই মুহূর্তে আমরা সকলেই এক।’ 

এর আগে পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার প্রেক্ষিতে সকালে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং’এর নেতৃত্বে দিল্লিতে সংসদীয় দলের বৈঠক ডাকা হয়। ওই বৈঠকে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দেশটির সংসদীয় মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং টোমার, কংগ্রেস সাংসদ গুলাম নবি আজাদ, আনন্দ শর্মা ও জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, তৃণমূলের সুদীপ বন্দোপাধ্যায় ও ডেরেক ও’ব্রায়েন, শিবসেনার সঞ্জয় রাউত, তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি-র জিতেন্দ্র রেড্ডি, সিপিআই-এর ডি.রাজা, ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টির শরদ পাওয়ার, ন্যাশনাল কনফারেন্স-এর ফারুক আবদুল্লা, লোক জনতা পার্টির রাম বিলাস পাসওয়ান প্রমূখ।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় ৪২ জন জওয়ানের মৃত্যু হয়। হামলার পরই নাম জড়ায় জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ-এর। 


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য