Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ মে, ২০১৯ ১৬:৩১

বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে, ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে জবাব নেব: মমতা

অনলাইন ডেস্ক

বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে, ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে জবাব নেব: মমতা

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে সর্বভারতীয় বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ'র রোড শো'কে কেন্দ্র করে বিদ্যাসাগর কলেজে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার পর বিজেপিকে চরম হুঁশিয়ারি দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। মঙ্গলবার বেহালার জনসভায় তৃণমূল নেত্রী বলেন,''ঈশ্বরচন্দ্রের মূর্তি ভেঙে দিয়েছে। এটা নকশাল আমলেও ঘটেনি। এত বড় লজ্জা। আমরা এটা ছেড়ে দেব না। ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে জবাব নেব বিজেপি''।                  

এদিন অমিত শাহের রোড শো ঘিরে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কলেজস্ট্রিট ও বিধানসরণী। বিদ্যাসাগর কলেজে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কর্মীরা অমিত শাহের রোড শো চলাকালীন কলো পতাকা দেখান। এরপর কলেজ থেকে ইট নিক্ষেপের অভিযোগ উঠে। অভিযোগ, তারপরই বিজেপি কর্মীরা ভিতরে ঢুকে পড়েন। চলে ভাঙচুর। তবে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের শিক্ষার্থীদের ইট ছোড়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তৃণমূলের অভিযোগ, ক্যাম্পাসে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে বিজেপির দুষ্কৃতীরা।

ওই ঘটনায় অত্যন্ত ক্ষুব্ধ মমতা। সংবাদমাধ্যম সূত্রে ভাঙচুরের খবর পান নেত্রী। বলেন,''অমিত শাহ বাবু, বিরাট নেতা নাকি! তার মুখ দেখলেই লোকে ভয় পায়। উত্তর কলকাতায় মিছিল করতে উত্তরপ্রদেশ, বিহার, ঝাড়খণ্ড থেকে লোক এনেছেন। কী করেছে শুনুন? সংবাদ মাধ্যম থেকে জানতে পেরেছি, অমিত শাহের মিছিল যেই শেষ হয়েছে', বিজেপির কিছু গুণ্ডা, হাতে ডাণ্ডা নিয়ে বিদ্যাসাগর কলেজে আগুন লাগিয়েছে। ঈশ্বরচন্দ্রের মূর্তি ভেঙে দিয়েছে। এটা নকশাল আমলেও ঘটেনি। এত বড় লজ্জা। আমরা এটা ছেড়ে দেব না। ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে জবাব নেব বিজেপি''।

মমতা আরও বলেন, ''জানো তোমরা, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর কে? যিনি নারী শিক্ষার প্রচলন করেছিলেন। যিনি মানুষকে শিক্ষিত করেছিলেন''। এরপরই সভায় থাকা শিক্ষামন্ত্রীকে তত্ক্ষণাৎ বিদ্যাসাগর কলেজে যাওয়ার নির্দেশ দেন মমতা। বলেন, ''আপনি চলে যান পার্থ দা। সবার সাথে কথা বলুন। প্রিন্সিপ্যালের সঙ্গে কথা বলুন। অফিসিয়াল কমপ্লেন করবে কলেজ অথরিটি''।

মমতার কথায়, ''বিজেপির কাজে লজ্জিত। আমরা লজ্জিত। পুলিশ কেন অনুমতি দিল? মিছিল করার নামে বাইরের গুণ্ডা নিয়ে এসে আগুন লাগায়। দাঙ্গা লাগায়। বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙে। তাদের কোনও ক্ষমা আছে''। তৃণমূল নেত্রীর হুঙ্কার, এটা দ্বিশত বর্ষ বিদ্যাসাগরের। বাংলার হেরিটেজের গায়ে হাত দিলে আমার থেকে ভয়ঙ্কর কেউ নয়। রবীন্দ্রনাথের গায়ে হাত দিলে ছাড়ব না। বিদ্যাসাগরের গায়ে হাত দিয়ে তুমি আজ তুমি কী করেছ বুঝবে? সূত্র: জি নিউজ

বিডি-প্রতিদিন/১৫ মে, ২০১৯/মাহবুব


আপনার মন্তব্য