Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০১৩ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ জুলাই, ২০১৩ ০০:০০

বন্দী সাত নাবিক জীবিত উদ্ধারে তৎপর মন্ত্রণালয়

বন্দী সাত নাবিক জীবিত উদ্ধারে তৎপর মন্ত্রণালয়

সোমালিয়ায় জলদস্যুদের হাতে আটকাবস্থায় ডুবে যাওয়া জাহাজ এমভি আলবেদোতে থাকা সাত বাংলাদেশি নাবিক জীবিত আছেন বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। একই সঙ্গে তাদের উদ্ধারে মন্ত্রণালয় প্রথম থেকে এখনো তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে বলে জানানো হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে গতকাল এক বিবৃতিতে বলা হয়, লন্ডনভিত্তিক মেরিটাইম পাইরেসি অ্যান্ড হিউমেনিটারিয়ান রেসপনস প্রোগ্রাম (এমপিএইচআরপি) কার্যালয় নাইরোবিতে সোমালিয়ান জাতিসংঘ কার্যালয়ের সূত্রে নিশ্চিত করেছে, সাত বাংলাদেশি নাবিক জীবিত আছেন। জলদস্যুদের অপর একটি ফিশিং বোটে তাদের স্থানান্তর করা হয়েছে। স্বজনদের পক্ষ থেকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে দোষারোপের পর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এমভি আলবেদোর জলদস্যুদের হাতে আটক হওয়ার পর থেকেই দেশে ও দেশের বাইরে অপহৃতদের উদ্ধারের কাজে সম্পৃক্ত আছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। জাহাজটিতে সাত বাংলাদেশি ছাড়াও ভারত, শ্রীলঙ্কা, ইরান ও পাকিস্তানের নাগরিকরাও ছিলেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি বিষয়টিকে অগ্রাধিকার হিসেবে নিয়ে সংশ্লিষ্টদের দ্রুত ও নিরাপদে বাংলাদেশিদের উদ্ধারে ব্যবস্থা নিতে বলেন। তিনি ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম অর্গানাইজেশনের সাধারণ সম্পাদকের সর্বাত্দক সহযোগিতাও কামনা করেন। জাহাজটির মালিকানা মালয়েশিয়ার নাগরিকের হওয়ায় ঢাকায় দেশটির হাইকমিশনকে মন্ত্রণালয়ে ডেকে পাঠানো হয়। তার মাধ্যমে মালয়েশিয়া সরকারকে এ বিষয়ে মধ্যস্থতাকারী নিয়োগের অনুরোধ জানানো হয়। মন্ত্রণালয়ের বিশেষ অনুরোধে এমপিএইচআরপির একটি প্রতিনিধি দল কুয়ালালামপুর সফর করে মালয়েশিয়ার ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের সঙ্গে বৈঠক করে। বৈঠকে ভারত, শ্রীলঙ্কার মিশনগুলোর প্রতিনিধির পাশাপাশি বাংলাদেশের কুয়ালালামপুরের হাইকমিশনের এক কর্মকর্তাও উপস্থিত ছিলেন। মালয়েশিয়ার পক্ষগুলোর সঙ্গে সিরিজ বৈঠকের পর দেশটির কর্তৃপক্ষ জানায়, মালয়েশিয়া তাদের মধ্যস্থতাকারী নিয়োগ করবে না, কারণ জাহাজটির মালিকপক্ষ ইতোমধ্যে এমভি আলবেদোকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছে।


আপনার মন্তব্য