Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ আগস্ট, ২০১৯ ২৩:৫৮

হঠাৎ বেড়েছে পিয়াজ রসুন আদার দাম

বাজারে ইলিশের ছড়াছড়ি

নিজস্ব প্রতিবেদক

হঠাৎ বেড়েছে পিয়াজ রসুন আদার দাম

ঈদুল আজহার পর কমতির দিকে থাকলেও হঠাৎ করে পিয়াজ, রসুন ও আদার দাম বেড়েছে। এ ছাড়া অন্যান্য মসলার দাম বেড়েছে আগের সপ্তায়। অন্যদিকে বাঙালির পছন্দের ইলিশে ভরে গেছে রাজধানীর বাজারগুলো। দেশের বিভিন্ন নদ-নদীতে বিপুল পরিমাণ ইলিশ ধরা পড়ায় রাজধানীতে কমেছে ইলিশের দাম। এ ছাড়া গত সপ্তায় বেশির ভাগ সবজির দর স্থিতিশীল দেখা গেছে।

ঢাকার বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, কেজিপ্রতি আদা, রসুন ও কাঁচা মরিচ ১০ থেকে ৩০ টাকা পর্যন্ত বাড়তি দামে বিক্রি করছেন ব্যবসায়ীরা। বিক্রেতারা বলছেন, ঈদের পর পাইকারি বাজারে মালের সংকট থাকায় দাম বাড়তি রয়েছে; যার প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারে। রাজধানীর মতিঝিল ব্যাংক কলোনি, টিঅ্যান্ডটি কাঁচাবাজার, কমলাপুর, শাহজাহানপুর, দয়াগঞ্জ, সবুজবাগ, রামপুরাসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। এসব বাজারে প্রতি কেজি দেশি পিয়াজ বিক্রি করতে দেখা গেছে ৫৫ থেকে ৭০ টাকা কেজি দরে; যা এক সপ্তাহ আগে বিক্রি হয়েছে ৪৫ থেকে ৫৫ টাকা। আমদানি করা পিয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজি; যা এক সপ্তাহ আগে বিক্রি হয়েছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা। একইভাবে কেজিপ্রতি ১৫ থেকে ২৫ টাকা বাড়তি দরে বিক্রি হচ্ছে রসুন। এসব বাজারে দেশি রসুন বিক্রি হচ্ছে ২০০, আমদানি করা রসুন ২০০ থেকে ২১০ টাকা কেজি। প্রতি কেজি আদার দাম বেড়েছে ১০ টাকা। দেশি আদা ২০০ থেকে ২১০, আমদানি করা আদা ২০০ থেকে ২২০ টাকা কেজি বিক্রি করতে দেখা গেছে। এখন রাজধানীর প্রায় প্রতিটি মাছ বাজারই ইলিশের দখলে। যে কোনো বাজারে চোখে পড়ছে ১ কেজি ওজনের ইলিশ। সেই সঙ্গে ভরপুর আছে ছোট ও মাঝারি ইলিশে। বাজারে ইলিশের এমন সরবরাহের কারণে দামও কমেছে। ফলে ইলিশের ক্রেতাও বেড়েছে। তবে ছোট ইলিশের থেকে বড় ইলিশের প্রতিই ক্রেতাদের ঝোঁক বেশি। বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, বাজারভেদে ১ কেজি সাইজের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৮০০-১০০০ টাকা পিস। বড় ইলিশের পাশাপাশি দাম কমেছে ছোট ও মাঝারি ইলিশের। ৭০০-৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে ৬০০-৭০০ টাকার মধ্যে। ৫০০ গ্রাম ওজনের ইলিশের কেজি ৪৫০ থেকে ৫০০ টাকার মধ্যে। এদিকে সবজি বাজারে পটোল, ঝিঙে, ধুন্দল, চিচিঙ্গা, বেগুন, ঢেঁড়সের কেজি ৬০-৭০ টাকা। এ ছাড়া কাঁকরোল ৪০-৫০, বেগুন ৫০-৬০, পেঁপে ৩০-৩৫ টাকা কেজি। লাউ বিক্রি হচ্ছে ৬০-৭০ টাকা পিস।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর