শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৬ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:২২

নারায়ণগঞ্জে ভবনধস

৪৬ ঘণ্টা পর উদ্ধার শিশু ওয়াজেদের লাশ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

৪৬ ঘণ্টা পর উদ্ধার শিশু ওয়াজেদের লাশ

নারায়ণগঞ্জ শহরের বাবুরাইল এলাকায় নির্মাণাধীন চারতলা একটি ভবন ধসে পড়ার ঘটনায় নিখোঁজ স্কুলছাত্র ইফতেখার আহমেদ ওয়াজেদকে (১২) প্রায় ৪৬ ঘণ্টা পর মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল ২টায় ভবনের একটি দেয়ালের নিচ থেকে চাপা পড়া অবস্থায় তার লাশের সন্ধান পাওয়া যায়। পরে লাশ উদ্ধারের প্রক্রিয়া শুরু হয়। দেয়ালের নিচে চাপা পড়ে থাকায় লাশের সন্ধান পেতে দেরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকর্মীরা। শিশুটির মূলত পুরো ভবনের ধসের নিচে চাপা পড়ে ছিল। নিচে নোংরা কাদাপানি থাকায় সেখানে উদ্ধার অভিযানে একাধিকবার নামতে গিয়েও নামতে পারেননি উদ্ধারকর্মীরা। অনেকবার এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে পানি দিয়ে কাদা দূর করে তল্লাশি চালানর কথা বলা হলেও পানি দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়নি। লাশের সন্ধান পাওয়ার পর পানি দিয়ে কাদা দূর করে নিচ থেকে টেনে লাশ বের করা হয়। আবদুল রুবেল ও কাকলী বেগম দম্পতির সন্তান ওয়াজেদ। ধসে যাওয়া বাড়িটি থেকে কাছেই তাদের বাড়ি। ওয়াজেদ একই এলাকার ব্যাপারীপাড়ার সানরাইজ স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। রবিবার বিকালে মুন্সিবাড়ী এলাকার এইচ এম ম্যানশন নামের ভবনটি ধসে পড়ে। ফায়ার সার্ভিসের মণ্ডলপাড়া স্টেশনের স্টেশন অফিসার বেলাল বলেন, ‘আমরা উদ্ধার অভিযানে দেয়াল ভাঙতে ভাঙতে শেষ পর্যায়ে নিচের দিকের চাপা পড়া ওয়াজেদের পায়ের সন্ধান পাই। তৎক্ষণাৎ তাকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করা হয়। তবে চেষ্টা করেও তাকে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।’ তিনি বলেন, ‘হয়তো ওয়াজেদ বের হতে গিয়ে দেয়ালের নিচে চাপা পড়েছিল, যে কারণে আমরা ভবনের ভিতরে দেয়াল কেটে কেটে আসবাবপত্র সরিয়েও তার সন্ধান পাচ্ছিলাম না। কাদার কারণে পানির নিচে নেমেও অনুসন্ধানে অনেক বেগ পেতে হয়।’ ওয়াজেদের বাবা রুবেল জানান, তার সন্তান ভবনটির নিচতলায় সোনিয়া নামে এক মহিলার কাছে আরবি পড়তে যায়। আরবি পড়তে গিয়ে ভিতরে সে আটকা পড়ে। প্রথম থেকেই ফায়ার সার্ভিসকে আমরা বলেছি যেন ভিতরে তারা অক্সিজেন দেয়। কিন্তু তারা আমাদের কথা শোনেনি। আজ দুই দিন পর আমার সন্তানকে তারা মৃত উদ্ধার করল।’


আপনার মন্তব্য