শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০৭

কর্মসংস্থানের দুয়ার খুলছে জাপান

শাহ্ দিদার আলম নবেল, সিলেট

কর্মসংস্থানের দুয়ার খুলছে জাপান

দিন দিন ছোট হয়ে আসছে মধ্যপ্রাচ্যের শ্রমবাজার। সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ মধ্যপ্রাচ্যের প্রায় সব দেশে চলছে অবৈধ অভিবাসীদের ধরপাকড়। বন্ধ হয়ে যাচ্ছে শ্রম রপ্তানি। এমন অবস্থায় নতুন সুখবর নিয়ে আসছে এশিয়ার দেশ জাপান।

২০২৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে প্রশিক্ষিত জনশক্তি নেবে জাপান সরকার। মধ্যপ্রাচ্যে সংকুচিত হয়ে আসা শ্রমবাজার সংকট দূর করতে জাপানে জনশক্তি রপ্তানিতে সরকার নানা উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

গতকাল সিলেটে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ইমরান আহমদ আরও বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের শ্রমবাজার সংকুচিত হওয়ায় বাংলাদেশকে নতুন কর্মক্ষেত্রের সন্ধান করতে হচ্ছে। এক্ষেত্রে জাপানে কর্মসংস্থানের নতুন দুয়ার খুলছে। জানা গেছে, এই চুক্তি অনুযায়ী জাপান সরকার ১৫টি ক্যাটাগরিতে ২০২৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে জনবল নেবে। এর আগে জাপান গমনেচ্ছুকে জাপানি ভাষা শেখার পাশাপাশি ১৫ ক্যাটাগরির মধ্যে যে কোনো একটিতে প্রশিক্ষণ নিতে হবে। পরে জাপান সরকার পরীক্ষা নিয়ে একটি প্যানেল তৈরি করবে। সেই প্যানেল হতে জাপানি কোম্পানিসমূহ কর্মী বাছাই করে চাহিদাপত্র দাখিল করবে। পরবর্তীতে দুই দেশের সরকারের অনুমোদন নিয়ে ‘জিরো কস্ট মাইগ্রেশনের’ মাধ্যমে জাপানে প্রেরণ করা হবে জনশক্তি।

জাপান সরকার যে ১৫টি ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশ থেকে জনবল নেবে তার মধ্যে রয়েছে- কেয়ার ওয়ার্কার, ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড ইনফরমেশন, কনস্ট্রাকশন, শিপ বিল্ডিং অ্যান্ড শিপ মেশিনারি, অটোমোবাইল মেনটেইনেন্স, এভিয়েশন ইন্ডাস্ট্রি, বিল্ডিং ক্লিনিং ম্যানেজমেন্ট, ইন্ডাস্ট্রি মেশিনারি, একোমেনডেশন, এগ্রিকালচার-ফিশারি অ্যান্ড একুয়াকালচার, ম্যানুফেকচার অব ফুড অ্যান্ড বেভারেজ, ফুড সার্ভিস, ইলেকট্রিক্যাল, মেশিন পার্টস অ্যান্ড টোলিং এবং প্রিকাস্ট ম্যানুফেকচারিং ওয়ার্কস।


আপনার মন্তব্য